শুক্রবার, ২৬ মে ২০১৭ ০৩:০৫ ঘণ্টা

মৌলভীবাজার একাটুনা ইউপির উম্মুক্ত বাজেট ঘোষনা

Share Button

মৌলভীবাজার একাটুনা ইউপির উম্মুক্ত বাজেট ঘোষনা

গত ২৪মে মৌলভীবাজার জেলা সদরের ৬নং একাটুনা ইউ পির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবু সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে ইউনিয়নের  ২০১৭/২০১৮ অর্থ বছর এর উম্মুক্ত বাজেট ঘোষনার অনুষ্টান অনুষ্টিত হয়।
উক্ত বাজেট সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য  রাখেন মৌলভীবাজার -রাজনগর -৩ আসনের সাংসদ সৈয়দা সায়রা মহসীন এমপি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য  রাখেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম. মৌলভীবাজার  উপজেলা নির্বাহী অফির্সার ইকবাল হোসেন. সদর  উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান হাফেজ আলাউর রহমান টিপু. মৌলভীবাজার সদর  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আনকার আহমদ.  জেলা কৃষকলীগ  সভাপতি জমসেদ মিয়া. উপজেলা প্রজেক্ট বাস্তবায়ন অফিসার আবেদ আলী. সহকারী শিক্ষা অফিসার আরতী বেনার্জি সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ উপস্তিত ছিলেন।
এদিকে বৃটেন থেকে একাটুনা ইউনিয়ন ডেভেলপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন অব মৌলভীবাজার এর প্রতিষ্ঠাতা ট্রাষ্টি. এবং ডেইলি সিলেট ও দৈনিক মৌমাছিকন্ঠের সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি  কমিউনিটি লিডার মকিস মনসুর আহমদ. একাটুনা ইউনিয়ন প্রতিভা যুব সংঘের সভাপতি জাকারিয়া আহমদ .সাধারণ সম্পাদক রুমন আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক  ছাত্রনেতা ফয়সল মনসুর, যু্গ্ম সম্পাদক মো. রুবেল মিয়া. সাংগঠনিক সম্পাদক নান্টু দেব প্রমুখ নেতৃবৃন্দ এক যুক্ত বিবৃতিতে ইউনিয়নের  ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছর এর উম্মুক্ত বাজেট ঘোষনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সংবাদদাতা

এই সংবাদটি 1,010 বার পড়া হয়েছে

পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত।  পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন।  ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে।  সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন।  ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন
পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন। ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন। ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন