মঙ্গলবার, ২২ আগ ২০১৭ ০৪:০৮ ঘণ্টা

তিন তালাক নিষিদ্ধ হলো ভারতে

Share Button

তিন তালাক নিষিদ্ধ হলো ভারতে

ভারতের মুসলিমদের ব্যাপক আলোচনার মধ্যেই তিন তালাকপ্রথাকে আগামী ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সুপ্রিমকোর্ট।

এ বিষয়ে প্রধান বিচারপতি ও বাকি বিচারপতিদের মধ্যে মতপার্থক্য হয়। বেঞ্চের ৩ বিচারপতি বলেন, তিন তালাককে অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হোক। এরপরই প্রধান বিচারপতি জে এস খেহরের নেতৃত্বে ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ এই প্রথাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

বেঞ্চের বাকি ২ বিচারপতি বলেন, এ নিয়ে কেন্দ্রকে আইন প্রণয়নের দায়িত্ব দেওয়া হোক। তাই তাদের কথাও আংশিক মেনে নিয়ে ৬ মাসের মধ্যে কেন্দ্রকে নতুন আইন প্রণয়ন করতে বলা হয়েছে।

আদালত আপাতত জানিয়েছে আগামী ৬ মাস তিন তালাক দেওয়া যাবে না। এদিন প্রধান বিচারপতি খেহর ও বিচারপতি এন আবদুল নাজির তিন তালাক প্রথা বেআইনি ঘোষণার বিরুদ্ধে ছিলেন। কিন্তু অন্য তিন বিচারপতি ইউ ইউ ললিত, আর এফ নরিম্যান ও কুরিয়েন জোসেফ এই প্রথাকে বেআইনি ঘোষণা করার পক্ষপাতিত্ব করেন।তিন তালাকের বিরুদ্ধে যাঁরা শীর্ষ আদালতে পিটিশন ফাইল করেন, তাঁরা হলেন আফরিন রহমান, সায়ারা বানু, ইসরাত জাহান, গুলশন পারভিন ও ফারহা ফয়েজ।

আরশাদ মাদানী :
এর আগে গত মে মাসে তিন তালাক ইস্যুেতে  বক্তব্য দেন ভারতের  জমিয়তে উলামায়ে হিন্দ প্রধান মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী। তিনি বলেন ‘তিন তালাক’ ইস্যুটি অতিরঞ্জিত করে দেখানো হচ্ছে।
‘তিন তালাক’ ইস্যুতে মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেন, এটা ধর্মীয় বিষয় এবং ধর্মে তার সমাধানও রয়েছে। তিনি অবশ্য বলেন, যদি সুপ্রিম কোর্ট কোনো গ্রহণযোগ্য রায় দেয় তাহলে তাকে স্বাগত জানানো হবে। ‘তিনি বলেন, ‘মুসলিমরা এখানে বহু শতাব্দী ধরে বাস করে আসছে। আমার মনে হয় ‘তিন তালাক’ ইস্যু নিয়ে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। সকলকে বোঝা উচিত এটা রাস্তার বিষয় নয়, এটা ধর্মীয় বিষয় এবং ধর্মীয় লোকেরাই এ নিয়ে পদক্ষেপ করতে পারে।’

এই সংবাদটি 1,019 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com