শুক্রবার, ০৮ সেপ্টে ২০১৭ ০৬:০৯ ঘণ্টা

আরাকান রাজ্যের স্বাধীনতা চাই: তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী

Share Button

আরাকান রাজ্যের স্বাধীনতা চাই: তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী

হবিগঞ্জ থেকে এইচ. এম. হাফিজুর রহমান:: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাইখুল হাদিস আল্লামা হাফিয তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী বলেছেন, মায়ানমারের সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ সন্ত্রাসীরা মুসলমানদের হত্যা, ধর্ষণ ও পুড়িয়ে মারাসহ যে নির্মম নির্যাতন এমনকি তাদের ঘর-বাড়ি পুড়ে ভীটে-বাড়ী ছাড়া করছে, তা কোনো মুসলমান ও বিবেকবান মানুষ সহ্য করতে পারে না। মায়ানমার সরকার হত্যা ও নির্যাতন বন্ধ না করলে বাংলাদেশের মুসলমানরা মায়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করতে বাধ্য হবে! মুসলমানদের ঘর-বাড়ি রক্ষায় ঝাপিয়ে পড়বে। মুসলমানদের উপর নির্মম নির্যাতনের কারণে মায়ানমার সরকারকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ঘোষণা করার দাবীও জানান তিনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার ৭ সেপ্টেম্বর ছাত্র জমিয়ত বানিয়াচং উপজেলা শাখা আয়োজিত ২০১৭ সালের দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) উত্তীর্ণ নবীন আলেমদের গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আল্লামা হবিগঞ্জী জাতী সংঘ, ওআইসি ও সার্কসহ আর্ন্তজাতিক সংস্থা গুলোর প্রতি মায়ানমারে গণহত্যার বিরুদ্ধে এবং আরাকানকে স্বাধীন রাষ্ট্র করতে কার্যকর ভূমিকা রাখতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি সার্ক সম্মেলন আহ্বান করে আরাকান রাজ্য স্বাধীন ও রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতন বন্ধে মায়ানমার সরকারের উপর চাপ প্রয়োগ করুন। এবং নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য সীমান্ত খুলে দিন। ষোল কোটি জনগণ আছে আপনার সাথে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী বলেন, মানবিক কারণে বাংলাদেশ সরকারকে মজলুম মুসলমানদের খাদ্য, চিকিৎসা ও আশ্রয় দেয়া ঈমানী ও নৈতিক দায়িত্ব।
রোহিঙ্গা মুসলমানরা সেখানকার সেনাবাহিনীর অত্যাচার থেকে রেহাই পাচ্ছে না। সেখানে মুসলমানদের সাহায্যে এগিয়ে যাওয়া বাংলার মুসলমানদের উপর নৈতিক দায়িত্ব। সুতরাং হত্যা ধর্ষণ বন্ধ না করলে আমরা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

বানিয়াচং উপজেলা শাখা ছাত্র জমিয়ত সভাপতি হাফেজ সাইফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হাফেজ তাওহীদুল ইসলামের পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, মাও: মুখলিছুর রহমান, মাও: আব্দুল জলীল ইউসূফী, মুফতি মুবাশ্বীর আহমদ খান, ছাত্র জমিয়তের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি হাফেজ মাও: তাফহীমুল হক, সহ সাংগঠনিক মাও: এখলাছুর রহমান, জেলা যুব জমিয়ত সভাপতি মুফতি আমীর আহমদসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

এই সংবাদটি 1,020 বার পড়া হয়েছে