শনিবার, ০৯ সেপ্টে ২০১৭ ০৩:০৯ ঘণ্টা

জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদের কাঁঠালবাড়ী ভ্রমণ

Share Button

জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদের কাঁঠালবাড়ী ভ্রমণ

সিলেট রিপোর্ট:  জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদের উদ্দ্যোগে সিলেটের নতুন পর্যটন স্পট কানাইঘাটের রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের অন্তর্গত  কাঁঠালবাড়ী হাওর দ্বীপে শেকড়ের খোঁজে এক অানন্দ ভ্রমণ অনুষ্টিত হয়েছে।  শুক্রবার সকালে পরিষদের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষকে নিয়ে এ ভ্রমণ অনুষ্টিত হয়। সকালে সিলেট থেকে হরিপুর হয়ে নৌকাযোগে  কাঁঠালবাড়ী যান নেতৃবৃন্দ।সেখানে গিয়ে সেখানকার প্রাকৃতিক দৃশ্য তারা ঘুরে ঘুরে দেখেন। অত্যন্ত সুন্দর,মনোমুগদ্ধকর দৃশ্য দেখে সকলেই বিমোহিত হন। তারা অাঞ্চলিক গানের তালে তালে সিলেটের বিভিন্ন ইতিহাস- ঐতিহ্য তুলে ধরেন। পরে কাঁঠালবাড়ী গ্রামবাসীর সাথে বাদ জুম্মা   হেলাল মিয়ার বাড়িতে উঠান বৈঠকে এক মতবিনিময়ে মিলিত হন। পরিষদের সভাপতি  বিশিষ্ট শিক্কানুরাগি, লেখক, গবেষক ও ব্যাংকার মোহাম্মদ মোশতাক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক লেখক নাসির উদ্দিনের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় স্থানীয় লোকজন তাদের দুংখদুর্দশা, জীবন সংগ্রামের কথা তুলে ধরেন।যোগাযোগ, বিদ্যুত, শিক্ষাপ্রতিষ্টান বিহীন  অঞ্চল  বলে তারা জানান। স্হানিয় জনগন লেখক ও সাংবাদিকবৃন্ন্দকে পত্রিকার মাধ্যমে তাদের এলাকায় একটি স্কুল প্রতিষ্টার জন্য সরকারের কাছে তাদের এ নিত্য প্রয়োজনিয় দাবিটি পৌছানোর জন্য অনুরোধ জানান।  নেতৃবৃন্দ লিখনীর মাধ্যমে এসব চিত্র তুলে ধরবেন বলে তাদের অাশ্বস্থ করেন। অানন্দ ভ্রমণে যারা ছিলেন তার মধ্যে গবেষক মোহাম্মদ মোশতাক চৌধুরী- ব্রাঞ্চ সার্ভিস ম্যানেজার ওয়ান ব্যাংক, সিলেট শাখা  এবং সভাপতি, জৈন্তিয়া ইতিহাসঐতিহ্য সংরক্ষণপরিষদ), লেখক সাদেক আহমদ, (লেখক ও কলামিষ্ট, দাঁড়াও পথিক গ্রন্হের লেখক), কবি রোজী মতিন, (কবি ও প্রাবন্ধিক), রোটারিয়ান রেবেকা জাহান রোজী (কবি,সংগঠক,সমাজকর্মী),  মো.নাসির উদ্দিন -( সাধারণ সম্পাদক জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ এবং সম্পাদক ঐতিহ্য সন্ধানী কাগজ অনুপ্রাণন ), মো. আলমগীর চৌধুরী-( সাংগঠনিক  সম্পাদক জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ এবং উপ সম্পাদক ঐতিহ্য সন্ধানী কাগজ অনুপ্রাণন), লুৎফুর রহমান তোফায়েল – ( তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ এবং নির্বাহী সম্পাদক দৈনিক বিজয়ের কণ্ঠ), সাংবাদিক তাওহীদুল ইসলাম- (সদস্য সচিব শেকড়ের খোঁজে আনন্দ ভ্রমণ বাস্তবায়ন কমিটি,  সম্পাদক- সাপ্তাহিক অপূর্ব সিলেট), ব্যাংকার ইকবাল আহমদ, সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম,নির্বাহী সদস্য জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ এবং সাধারণ সম্পাদক কানাইঘাট অনলাইন প্রেসক্লাব, শাহিদ হাতিমী,  স্টাফরিপোর্টার -সিলেট রিপোটৃ ডটকম, নির্বাহী সদস্য জৈন্তিয়া ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ পরিষদ, সম্পাদক-পুষ্পকলি,শিক্ষক-দারুল আজহার ক্যাডেট মাদ্রাসা,সিলেট, লায়ন হুমায়ূন কবীর, সি ই ও বাংলা ওভারসিজ ক্যারিয়ার্স, মো.গোলাম রাব্বানী, সমাজকর্মী, শিক্ষানুরাগী, শাহানারা বেগম ইমা, শিক্ষক, সাহিত্যকর্মী, মো.উবায়দুল্লাহ, এষনা সাহিত্য সাংবাদিকতা ফোরাম, মো. নুরুল আম্বিয়া, প্রবাসী,  শেখ নওরীন জাহান ঈশা-বিএসএস (অনার্স) এমসি কলেজ, তাহসিন শাফিন এইচ এস সি, জালালাবাদ ক্যান্টঃ পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ ও জুবায়েল আহমদ প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ দাবি করেন, সরকার যোগাযোগ ব্যবস্হার উন্নয়নের মাধ্যমে কাটাল বাড়ি হাওর টিলা এলাকাকে পর্যটন কেন্দ্রে রুপান্তরিত করলে বছরে কোটি কোটি টাকা রাজস্ব আয় করতে পারবে।

এই সংবাদটি 1,024 বার পড়া হয়েছে