শনিবার, ০৯ সেপ্টে ২০১৭ ০৮:০৯ ঘণ্টা

‘নিবন্ধনের মাধ্যমে নতুন সব রোহিঙ্গাকে একটি স্থানে রাখা হবে’

Share Button

‘নিবন্ধনের মাধ্যমে নতুন সব রোহিঙ্গাকে একটি স্থানে রাখা হবে’

  অনলাইন ডেস্ক: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, মিয়ানমারে সংঘটিত ঘটনার পর থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে বর্তমান সরকার চিন্তা ভাবনা করছেন। দেশান্তরিত নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের অন্ন, বাসস্থান এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। নিবন্ধনের মাধ্যমে নতুন সব রোহিঙ্গাকে একটি স্থানে রাখা হবে। শনিবার সকালে টেকনাফের মুচনী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে মন্ত্রী একথা জানান।
 
ত্রাণমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং এলাকায় পাঁচ হাজার একর জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। সেখানে আপাতত আড়াই হাজার একর জমিতে রোহিঙ্গাদের জন্য আশ্রয় শিবির নির্মাণ করে দেওয়া হবে। মন্ত্রী রোহিঙ্গাদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আপনাদের আসল ঠিকানা হচ্ছে মিয়ানমার। সে দেশের সমস্যার সমাধান খুব দ্রুতই হয়ে যাবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের সমস্যা দেখার জন্য আমাদেরকে এখানে পাঠিয়েছেন। আন্তর্জাতিকভাবে সমস্যার সমাধান হয়ে গেলে আপনারা নিজ দেশে আবারো ফিরে যেতে পারবেন।
 
মন্ত্রীকে কাছে পেয়ে হাজার হাজার রোহিঙ্গা নারী ও পুরুষ কান্নাজড়িত কণ্ঠে সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের দু:খের কথা শুনে মন্ত্রী আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় দুর্যোগ ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল, স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাইলাউ মারমা, উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হোসেন ছিদ্দিক, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: মাইন উদ্দিন খাঁন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই সংবাদটি 1,029 বার পড়া হয়েছে