রবিবার, ১০ সেপ্টে ২০১৭ ০৩:০৯ ঘণ্টা

সুচি ও মোদিকে নিয়ে রাকিবুল এহছান মিনারের ছড়া

Share Button

সুচি ও মোদিকে নিয়ে  রাকিবুল এহছান মিনারের ছড়া

সুচি ও মোদিকে নিয়ে  রাকিবুল এহছান মিনারের ছড়া
_____________সুচিঃ____________
আসেন দাদা হাতটা ধরেন
আমি আপনার সুচি,
দুজন মিলে রোহিঙ্গাদের
করবো কুচি কুচি।
আপনে শুধু পাশে থাকেন
নেইতো ওদের মাফ,
দাদা চাইলে হতে পারেন
আমার পোলার বাপ!
দুজন মিলে মানবতার
পাঁছায় দিব বাঁশ,
বাঁশের উপর কাটবে জীবন
ওদের বারোমাস।
কেমন সাঁজা সাঁজলাম আমি
দেখেন দাদা চেয়ে,
বয়স বেশি কিন্তু দাদা
আমি কোমল মেয়ে!
দাদাঃ
তোমার রুপে নেইতো যাদু
আছে হিংস্র মুখ,
তোমায় দেখে মাঝে মাঝে
কাঁপে আমার বুক!
আশার কথা, খুনি তুমি
শুধুই মুসলমানের,
এ দিক থেকে বন্ধু তুমি
আমার প্রিয় প্রাণের।
রক্ত ঝরে যখন দেখি
রোহিঙ্গাদের মুখে,
বুকটা আমার তোমার প্রেমে
ভরে উঠে সুখে।
খুনি হয়ে খুনির প্রেমে
প্রেম জমবে ভারী,
আসল পুরুষ আছি দাদা
দেখবে কেমন পারি!
সুচিঃ
কি যে বলেন লজ্জা দিলেন
আস্থা আমার ছিলো,
বুকের মাঝে প্রেমের ঢেউয়ে
হঠাৎ মোচড় দিলো!
প্রাণের দাদা এবার আমায়
নিজের করে নিন,
বিনিময়ে মানুষ খুনের
স্বিকৃতি টা দিন।
নো-বাল প্রাপ্ত খুনি আমি
শান্তির মনষকন্যা,
দাদা আছেন ঝরবে দ্বিগুণ
ওদের রক্তের বন্যা।
দাদাঃ
মুসলমানের রক্ত ঝরুক
গো-মাতা থাক জিন্দা,
রোহিঙ্গাদের আত্মরক্ষায়
জানাই আমি নিন্দা।
গুলি করে মারবে ওদের
কোপে কোপে খন্ডিত,
জ্যান্ত পুড়ে মারবে আবার
ফাঁসির রায়ে দন্ডিত।
ধর্ষণ করে মারতে হবে
কোমল নারী পেলে,
আমার চেয়ে পটু জানি
তোমার দেশের ছেলে!
সুচিঃ
দাদার মনের আশা আমার
পূরণ করা ফরজ,
দাদার দেশের কোটি রুপি
আমার আছে করজ।
দাদার সাথে মিলে এবার
মানবতার পিছে,
আইক্কা ঢুলি বাঁশের বাগান
দিবো ওদের খিঁচে।
আমিঃ
স্বপ্ন দেখো ইচ্ছে মত
কর যতই সন্ধি,
সময় হলে দুজন খুনি
হবে ঠিকই বন্ধি।
স্বপ্ন দেখতে বাঁধা কিসের?
না হলে স্বপ্নদোষ!
দোষের বোঝা নেয়না তো আর
বেচারা নন্দঘোষ!
দাদার সাথে ডাইনি সুচির
কাবাব হবে চিতায়,
এখন না হয় বোগল বাজাও
ক্ষণিক সময় জিতায়।
নাফ নদীটা সাক্ষী হবে
সেদিন মোদের হয়ে,
আজকে যারা হায় অসহায়
যাচ্ছে সবই সঁয়ে।
সালাহ্ উদ্দিন আল আইয়ুবি
আর আরতুগ্রুল গাজী,
জন্ম নিবে ঘরে ঘরে
রাখবে জীবন বাজি।
হাসি সুচি গুদি মুদি
সবাই যাবি ভেসে,
তোদের রক্তে আমরা যাবো
জয়ের হাসি হেসে।
অলিক স্বপ্ন ভাঙ্গবে সেদিন
জাহান্নামে পুড়ে,
চেয়ে দেখিস জান্নাতে ঐ
রোহিঙ্গারা উড়ে।

এই সংবাদটি 1,053 বার পড়া হয়েছে