শনিবার, ৩০ সেপ্টে ২০১৭ ১২:০৯ ঘণ্টা

শান্তির ধর্ম ইসলামে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের কোন অনুমতি নেই

Share Button

শান্তির ধর্ম ইসলামে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের কোন অনুমতি নেই

রশীদ আহমদ, নিউইয়র্ক  থেকে : নিউইয়র্কের জাতিসংঘে একাডেমি ফর কালচারাল ডিপ্লোম্যাসী আয়োজিত বার্ষিক সম্মেলনের ২য় দিনে বক্তারা বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম এবং শান্তির ধর্ম ইসলাম অশান্তি সৃষ্টির জন্য কোন প্রকারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানোর অনুমতি দেয়নি। তাই যারা ইসলামফোবিয়ার নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন, তারা কখনো মুসলমান হতে পারে না।

চার দিনব্যাপী এই সিম্পেজিয়াম দ্বিতীয় দিনে প্রোগ্রাম শুরু হয় সকাল দশটায় এবং বিভিন্ন ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয়ে শেষ হয় রাত নয়টায়। বিভিন্ন দেশ থেকে আগত শতাধিক ডেলিগেটরা এতে অংশগ্রহণ করেন। বর্তমান বিশ্বে আন্তর্জাতিক সম্পদায়ের পারস্পরিক সম্পর্ক মানবাধিকার ও বহুমাত্রিক উন্নয়নের উপর জাতিসংঘ, আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের নতুন নেতৃত্বের প্রভাব শীর্ষক এ কনফারেন্সে বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শোয়াইব আহমদ যোগদান করেন। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জাতিসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি, বাংলাদেশ সরকারের প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন মিডিয়ার কর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

ইন্সটিটিউট ফর কালচারাল ডিপ্লোম্যাসীর ডাইরেক্টর জেনারেল মিস্টার মার্ক ডনফ্রিড এর সঞ্চালনায় এতে চীফ গেস্ট ছিলেন জাতিসংঘে হাঙ্গেরিয়ান স্থায়ী প্রতিনিধি কাতালিন বুগউ।

কীনোট স্পীকার ছিলেন জমিয়তে উলামা ইউকের সভাপতি মাওলানা শুয়াইব আহমদ, ড.জ্যাসিকা লিতওয়াক,কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি প্রফেসর ভালকীর বার্গান।
জমিয়ত নেতা মাওলানা শুয়াইব আহমদ বলেন, ইসলামের নামে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যারা মানুষকে অহেতুক হত্যা করছে এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে দাঙ্গা বাজানোর চেষ্টা করছে,তারা কখনো মুসলমান হতে পারে না।

উল্লেখ্য যে জাতিসংঘের ইনষ্টিটিউট ফর কালচারাল ডিপ্লোম্যাসি বিভাগের বার্ষিক আন্তর্জাতিক এ কনফারেন্সে জাতিসংঘের নিউইয়র্কে অবস্থিত সদর দপ্তরে সম্মেলন গত ১৯শে সেপ্টেম্বর থেকে  শুরু হয়ে  ২২শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই কনফারেন্স চলে।

এই সংবাদটি 1,008 বার পড়া হয়েছে