সোমবার, ৩০ অক্টো ২০১৭ ০৮:১০ ঘণ্টা

বান্ধবীর বাবার সঙ্গে প্রেম করিনি, বন্ধুর মেয়ের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়েছিল : শাওন

Share Button

বান্ধবীর বাবার সঙ্গে প্রেম করিনি, বন্ধুর মেয়ের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়েছিল : শাওন

বিনোদন ডেস্ক রিপোর্ট: ঢালিউডের আলোচিত ছবি ‘ডুব’ এর সঙ্গে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের নামটি বারবার জড়িয়েছে। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পরও এমন বিতর্ক থামেনি।

ছবিটি হুমায়ূন আহমেদের জীবনী কিংবা জীবনী নয়- এ দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছে দর্শক।

ছবিটি লেখকের জীবনী নির্ভর এমন আশঙ্কা থেকে সেন্সর বোর্ডে একটি চিঠি দিয়েছিলেন লেখকের স্ত্রী অভিনেত্রী, পরিচালক ও গায়িকা মেহের আফরোজ শাওন। হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে তার সম্পর্ককে নেতিবাচকভাবে দেখানো হতে পারে- এমন শঙ্কাও ছিল তার।

এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনও করেন তিনি। সেসময় লেখকের মেয়ে শীলা আহমেদের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্যা দেন তিনি। জানান, শীলা আহমেদ কখনই তার সহপাঠী ছিলেন না। সম্প্রতি শীলা আহমেদের সঙ্গে নিজের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হন শাওন। এ প্রসঙ্গে টিভি অনুষ্ঠান ‘সেন্স অব হিউমার’র উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়ের এক প্রশ্নে তিনি বলেন, আমি আমার বান্ধবীর বাবার সঙ্গে প্রেম করিনি বরং আমার বন্ধুর মেয়ের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব হয়েছিল। হুমায়ূন আহমেদের কন্যা শীলা আহমেদ আমার বন্ধুর মেয়ে।

সেন্সর বোর্ডের বাধা পেরিয়ে ‘ডুব’ ছবির মুক্তি পাওয়ার বিষয়ে অনুষ্ঠানে শাওন বলেন, আমি যেই আশঙ্কাগুলো করছিলাম, অনেকবার ব্যাখা করেছি, আশঙ্কার কথা জানিয়ে আমি চিঠি দিয়েছি সেন্সর বোর্ডে। পাঁচটি জায়গায় তারা দৃশ্য কর্তন করেছেন।

এই সংবাদটি 1,016 বার পড়া হয়েছে

পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত।  পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন।  ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে।  সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন।  ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন
পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন। ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন। ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন