বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসে ২০১৭ ০৯:১২ ঘণ্টা

ছাত্র মৈত্রীর ৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে আনন্দ র‌্যালী

Share Button

ছাত্র মৈত্রীর ৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে আনন্দ র‌্যালী

সিলেট রিপোর্ট : বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রিয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও সিলেট জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সিকান্দার আলী বলেছেন, এ দেশের দীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস, ছাত্র আন্দোলনের ইতিহাস, দেশ বিভাগ থেকে শুরু করে ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ’৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ৬২’র ছাত্র আন্দোলন সহ সকল প্রগতিশীল রাজনৈতিক ও সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে এ দেশের ছাত্র সমাজ। তাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ছাত্র অধিকারের আন্দোলনে নিয়োজিত থেকে ছাত্র মৈত্রীকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।
কমরেড সিকান্দার আলী গতকাল নগরীর পৌর বিপনীর দলীয় কার্যালয়ে বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি আরো বলেন, স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সহ সমসাময়িক সকল আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে গিয়ে ছাত্র মৈত্রী নেতাকর্মী বুকের তাজা রক্ত দিয়েছেন। এ থেকে ছাত্র মৈত্রী প্রতিটি কর্মীকে শিক্ষা নিতে হবে। প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে নিজেকে পরীক্ষিত কর্মী হিসেবে প্রমাণ করতে হবে।
ছাত্র মৈত্রী কেন্দ্রিয় সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা সভাপতি স্বপন দাসের সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রিয় সদস্য, জেলা সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা চৌধুরীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদ সিলেট জেলা সভাপতি ইন্দ্রানী সেন, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন সিলেট জেলা সাধারণ সম্পাদক কাজী আনোয়ার হোসেন, যুব মৈত্রী সিলেট মহানগর সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ খোকন, সহ সভাপতি আলমগীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম খান, ছাত্র মৈত্রী সহ সাধারণ সম্পাদক সারতী উরাং, রাজনৈতিক শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সালেহ আহমদ, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক নূরুল ইসলাম, কামাল বাজার শাখা আহাবায়ক ও জেলা সদস্য মারজান আহমদ, খাজাঞ্চি ইউপি আহবায়ক ও জেলা সদস্য আলগীর মিয়া, রাগিব-রাবেয়া ডিগ্রী কলেজের আহবায়ক এনামুল হক, যুগ্ম আহবায়ক মুহিবুর রহমান, টিলাগড় শাখার আহবায়ক সিদ্দিকুর রহমান বেলাল। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ইমরান আহমদ, সাইফুর রহমান, শিপা উরাং, জুবায়ের আহমদ, আঙ্গুর আলী প্রম্রুখ। সভার পূর্বে একটি আনন্দ র‌্যালী নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পৌর বিপণীর দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। সবশেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

এই সংবাদটি 1,016 বার পড়া হয়েছে