রবিবার, ১০ ডিসে ২০১৭ ০৫:১২ ঘণ্টা

শরীয়ত বহির্ভুত নয় এমন বিষয়ে বড়দের সমালোচনা ঠিক নয়

Share Button

শরীয়ত বহির্ভুত নয় এমন বিষয়ে বড়দের সমালোচনা ঠিক নয়

শাইখ ফজলুল করীম মারুফ  হজরত আলী রাঃ ও মুয়াবিয়া রাঃ এর মধ্যকার বিষয়াবলীকে আমরা আলোচনা-সমালোচনা বাহিরে রাখি। আমরা মনে করি, এই মাসয়ালায় কথা না বলা ভালো। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোন সাহাবার সমালোচনাকে আমরা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত নিষিদ্ধ মনে করি।

এখান থেকে একটা শিক্ষা আমাদের নেয়া উচিৎ। সেটা হলো, বড়দের স্পষ্টত শরীয়ত বহির্ভুত নয় এমন বিষয়ে তাদের সিদ্ধান্ত ও কার্যক্রমকে সমালোচনার বাহিরে রাখা উচিৎ। তাদের মতভিন্নতা আমার-আপনার দৃষ্টিতে ভালোমনে না হলেও সেই বিষয়ে সমালোচনা করা উচিৎ না। হ্যা! কারো ইচ্ছে হলে তিনি তাদের সেই সিদ্ধান্ত মানলেন না বা তার অনুসরন করলেন না। সেটা নিয়ে বড়দেরকে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ করা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের আকিদাগত শিক্ষার খেলাফ।

ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন তাই উলামায়ে কেরামের মতভিন্নতাকে সমালোচনার বিষয়বস্তু বানায় না। উলামায়ে কেরামের কারো কারো কাজের সাথে আমাদের ভিন্নমত থাকলেও যতক্ষণ না সেটা স্পষ্টত শরীয়াহ এর খেলাফ হচ্ছে কতক্ষণ আমরা সেটা নিয়ে সমালোচনা করি না।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটিতে একটা বিভাজন এসেছে। একটা রাজনৈতিক সংগঠনে বিভাজন আসা নতুন কিছু না এবং অতি অবশ্যই সেটা নাজায়েজ না।


কর্মপন্থা, কর্মকৌশলগত মতভিন্নতার কারনে বিভাজন আসাটা হয়তো আপনার কাছে নেতিবাচক মনে হতে পারে কিন্তু দেশের শীর্ষ আলেমদের অন্যতম এইসব নেতার দৃষ্টিভঙ্গিকে সন্মান করা উচিৎ। সন্মান না করতে পারেন অন্তত সমালোচনার বিষয় বস্তু বানায়েন না


কর্মপন্থা, কর্মকৌশলগত মতভিন্নতার কারনে বিভাজন আসাটা হয়তো আপনার কাছে নেতিবাচক মনে হতে পারে কিন্তু দেশের শীর্ষ আলেমদের অন্যতম এইসব নেতার দৃষ্টিভঙ্গিকে সন্মান করা উচিৎ। সন্মান না করতে পারেন অন্তত সমালোচনার বিষয় বস্তু বানায়েন না। কারন সেটা আমাদের আকিদাগত বৈশিষ্ট্যের খেলাফ।

উলামায়ে ইসলামের তাক্বওয়াভিত্তিক সকল মতোভিন্নতাই শেষ বিচারে উম্মতের কল্যাণ ডেকে এনেছে। আমরা বিশ্বাস করি এই বিভাজনও তাক্বওয়াভিত্তিক। আশা করি আখেরে এর মধ্যেও আল্লাহ বরকত দান করবেন।

নিজেদের মধ্যে মতোভিন্নতা থাকা খারাপ না যদি সেটা নিজেদের মাঝে সৌহার্দ নষ্ট না করে আর যদি পরস্পরিক সহযোগীতা ও কল্যাণকামী মনোভাব থাকে।
আশা করি এই বিভাজনও সৌহার্দ্যপুর্ন মতোভিন্নতার নজীর স্থাপন করবে।

-সুত্র-শীলনবাংলা

এই সংবাদটি 1,093 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com