শনিবার, ৩০ ডিসে ২০১৭ ০৭:১২ ঘণ্টা

বৃটেনে ইসলামী অনুশাসন মেনে চলার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে: মুফতী সাইফুল ইসলাম

Share Button

বৃটেনে ইসলামী অনুশাসন মেনে চলার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে: মুফতী সাইফুল ইসলাম

সিলেট রিপোর্ট:
ইউরোপের বিশিষ্ট আলেম জমিয়ত নেতা ও জামিয়া খাতামুন্নাবিয়্যিন এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মুহতারাম মুফতী সাইফুল ইসলাম
জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদরাসা পরির্দশন করেছেন। এসময় জামিয়ার মুহতামিম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমীতাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। পরে জামিয়া দফতরে শিক্ষকমন্ডলি ও জমিয়তনেতাদের সাথে মতবিনিময় করেন।

তিনি জানালেন, মুসলমানদের জন্য পরিপূর্ণ ইবাদত-বন্দেগী ও ইসলামী অনুশাসন মেনে বৃটেনে চলাচলে কোন ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় না। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছেন, বৃটেনের তরুণ মুসলমানদের মধ্যে নামায আদায় ও ইসলামী অনুশাসন মেনে চলার হার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ইসলামধর্ম গ্রহণের হারও দিন দিন বাড়ছে। মুসলমানদের এসব অগ্রগতিতে ঈর্ষান্বিত হয়ে খ্রীস্টান তরুণদের একটা অংশের মাঝে ইসলাম বিদ্বেষ বাড়ছে বলেও লক্ষ্য করা যায়।
‘আপনার এই যে ইসলামী পোষাক- পায়জামা-পাঞ্জাবী, মাথায় পাগড়ি ও মুখভর্তি দাড়ি; এই নিয়ে রাস্তায় বা গাড়িতে চলাচলের সময় সাধারণ বৃটিশ খ্রীস্টানদের কী আচরণের আচরণ বা প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে মুফতী সাইফুল ইসলাম (হাফি.)বললেন, একদম কোন ধরণের হীনমন্যতায় ভূগি না। বরং পরিপূর্ণ দ্বীন মেনে চলা মুসলিম নারী-পুরুষের প্রতি সাধারণ বৃটিশদের বড় একটা অংশের তরফ থেকে শ্রদ্ধাবোধই লক্ষ্য করি আমরা। শপিং এ, গাড়িতে, হাসপাতালে বা চলার পথে তাদের দিক থেকে সম্মানজনক আচরণ পেয়ে থাকি। সংবাদপত্রে যেসব অপ্রীতিকর ঘটনার খবর আসে, সেটা বৃটিশ জনগোষ্ঠীর সামগ্রীক চিত্র নয়; সেগুলো বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলা যায়। তবে মুসলমানদের প্রভাব বৃদ্ধির সাথে সাথে ঈর্ষানিত কিছু বৃটিশ খ্রীস্টান তরুণের মধ্যে মুসলিম বিদ্বেষ তৈরি হচ্ছে; এটা ভুল নয়।
বৈঠকে আরো ছিলেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় অর্থসম্পাদক মুফতী মুনির হোসাইন কাসেমী, ঢাকা মহানগর সহসভাপতি মুফতী জাকির হোসাইন , মাসিক মুইনুল ইসলামের সাবেক নির্বাহী সম্পাদক মাওলানা মুনীর আহমদ সহ জমিয়ত, যুব জমিয়ত ও ছাত্র জমিয়তের নেতৃবৃন্দ।

এই সংবাদটি 1,069 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com