বৃহস্পতিবার, ০৪ জানু ২০১৮ ১১:০১ ঘণ্টা

দিরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে একজন খুন

Share Button

দিরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে একজন খুন

 

সিলেট রিপোর্ট:

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় আকিল শাহ (৬০) নামে একজন নিহত হয়েছে। সে উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের কালিনগর গ্রামের মৃত সোনফর উল্লার ছেলে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, বুধবার বাড়ীর আঙ্গিনার সিম (সবজি) গাছ ছাগলে খাওয়া নিয়ে মৃত সোনাফর উল্লার দুই ছেলে নিহত আকিল শাহ’র স্ত্রী ও তার ছোট ভাই সিদ্দিক মিয়ার স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। রাতে বাড়ীর পুরুষ সদস্যরা বাড়ীতে আসার পর সাড়ে দশটার দিকে উভয় পরিবারের মধ্যে বাকতিন্ডার এক পর্যায়ে তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। সংঘর্ষে আকিল শাহ (৬০) ও সিদ্দিক মিয়া (৫৫) গুরুতর আহত হয়। রাতেই তাদেরকে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে রাত ২টার দিকে কর্তব্যরত ডাক্তার আকিল শাহকে মৃত ঘোষণা করে।
বৃহস্পতিবার সকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) বেলায়েত হোসেন লস্কর ও দিরাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এ ব্যাপারে দিরাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এরই মধ্যে নিহতের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। তবে, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি। উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
এদিকে, দিরাইয়ের বহুল আলোচিত ডাকাতিসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামী মিনার মিয়া (৩০) এর অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করেছে হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে উপজেলার পাহাড়পুর এলাকাস্থ টাংনি নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। মিনার মিয়া দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের উত্তর সুরিয়ারপাড় গ্রামের মৃত রহিম উল্লার ছেলে।
দিরাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল জানান, মিনারের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে আজমিরীগঞ্জ থানা পুলিশ। তার বিরুদ্ধে দিরাই থানায় ডাকাতিসহ ৫টি মামলা রয়েছে। আজমিরীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন জানান, তার স্বজনরা জানিয়েছে গত শুক্রবার থেকে সে নিখোঁজ হয়। শনিবার থেকে আর ফোনেও পাওয়া যাচ্ছিল না । বৃহস্পতিবার তার পরিবারের লোকজন তার লাশের সন্ধ্যানপ্রাপ্তির বিষয়টি পুলিশকে জানায়। এরপর পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।
ওসি জানান, লাশ আজমিরীগঞ্জ থানা এলাকায় পাওয়া গেলেও মামলা হবে দিরাই থানায়। তার পরিবারের লোকজন জানিয়েছে, এটি তাদের গ্রামের বিষয়, মেয়ে সংক্রান্ত বিষয়ে ঘটনাটি ঘটতে পারে বলে তারা সন্দেহ করছেন ।

এই সংবাদটি 1,004 বার পড়া হয়েছে