বুধবার, ১৪ ফেব্রু ২০১৮ ১০:০২ ঘণ্টা

সিলেটে মুফতি ওয়াক্কাস, রাজনীতিতে ফের সক্রিয় মাওলানা আমকুনী

Share Button

সিলেটে মুফতি ওয়াক্কাস, রাজনীতিতে ফের সক্রিয় মাওলানা আমকুনী

সিলেট রিপোর্ট: র্দীঘ একযুগ পরে আবারো রাজনীতির ময়দানে সক্রিয় হলেন সিলেটের আন্দোলন সংগ্রামের এক সময়ের লড়াকু সৈনিক, জামিয়া মাহমুদিয়া ইসলামিয়া সোবহিনীঘাট সিলেট এর প্রতিষ্টাতা মুহতামিম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা শফীকুল হক্ব আমকুনী ।
আজ (১৪ ফেব্রয়ারি) সন্ধ্যায় সিলেট রিপোর্ট এর পক্ষ থেকে তার সাথে সাক্ষাত করে ফের রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি চার শর্তে মুফতি মো: ওয়াক্কাসের নেতৃত্বে সক্রিয় হওয়ার কথা জানান।  এবিষয়ে সিলেট রিপোর্ট-এ বিস্তারিত পৃথক প্রতিবেদন আসছে।
অনুসদ্ধানে জানাগেছে,  গত ১১ জানুয়ারী ২০১৮ জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের র্দীকালের মহাসচিব ও চলতি সেশনের নির্বাহী সভাপতি সাবেক ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মুফতি ওয়াক্কাস স্বীয় দলের সভাপতি খলিফায়ে মাদানী আল্লামা আব্দুল মোমিন ও মহাসচিব আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমীর নেতৃত্বে পরিচালিত ২৩ নং রাজনৈতিক নিবন্ধিত দল ত্যাগ করে পৃথক কমিটি ঘোষণা দেন।  এর আগের দিন ১০ জানুয়ারি জমিয়তের আমেলায় মুফতি ওয়াক্কাসকে দল থেকে বহিস্কার ঘোষণা করা হয়।   এর আগে জমিয়ত মহাসচিব আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী সংবাদ সম্মেলন করে মুফতি ওয়াক্কাসের বহিস্কারের ব্যাপারে ব্রিফিং দেন।  ঐ ব্রিফিংয়ে তার বিরুদ্ধে দলের গঠনতন্ত্র ও শৃংখলা বিরোধী অভিযোগ আনা হয়।  অবশ্য মুফতি ওয়াক্কাস নিজেকে মুল দলের পরিচয় দিয়েই তিনি দেশ ব্যাপী দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন। একই দলের নামে দুটি কমিটির কোন পক্ষ  আসল কোন পক্ষ নকল এর উত্তরে আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী গণমাধ্যমকে জানান, আমাদের সাথে নব্বই ভাগ সদস্যই রয়েছেন, কয়েকজন মিলে মুল দলের দাবিদার হতে পানেনা কেউ।   নির্বাচন কমিশনে আমাদের কমিটিই প্রকৃত জমিয়তের কমিটি।   কেউ যদি অবৈধ ভাবে ছিনিয়ে নিতে চান তাহলে আমরা আইনী ব্যবস্থা নিতে বাধ্যহবো। এদিকে, গতকাল ১৩ ফেব্রুয়ারি মুফতি ওয়াক্কাস  দুই দিনের সফরে সিলেট আসেন।  এসময় মাওলানা শফিকুল হক আমকুনীর সাথে মতবিনিময় করেন।   এর কয়েকদিন আগে মাওলানা আমকুনীকে আহবায়ক করে সিলেট জেলা জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেন মাওলানা মনসুরুল হাসান রায়পুরী।
বাহ্যত সিলেটের রাজনীতিতে  র্দীঘ এক যুগপরে আবারো সক্রিয় হলেন মাওলানা আমকুনী।  ২০০৮ সালের রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন প্রক্রিয়ার সময় কট্রর নারী নেতৃত্ব বিরোধী এই আলেম মাওলানা ফরিদ উদ্দীন মাসউদের সাথে একত্রিত হয়ে ‘জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’এর নামে নিবন্ধন পেতে আবেদন করেছিলেন।  তখন নিবন্ধন না পেয়ে অরাজনৈতিক দল হিসেবে সিলেট কেন্দ্রীক ‘জমিয়তে উলামা বাংলাদেশ’ নামে কিছুদিন কার্যক্রম পরিচালনা করেন ।  ২০০৫ সালে শায়খে গাজিনগরীর নেতৃত্বে এই অরাজনৈতিক দলের কমিটিতে কেন্দ্রীয় নায়বে সদর ছিলেন মাওলানা আমকুনী।
সাম্প্রতিক সময়ের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়ে প্রশ্ন করা হলে   বিএনপি-জামাত জোট বিরোধী এই আলেম বলেন, সিয়াসত (রাজনীতি) আমাদের মুল কাজ নয়।  রাজনীতি হলো আমাদের চর্তুথকাজ।  ‘ তিনি একসময় মুফতি ওয়াক্কাসের বিরোধী ছিলেন বর্তমানে তারই নেতৃত্বে ঘোষিত সিলেট জেলা কমিটির আহবায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।  এসব বিষয়ে পরবর্তীপ্রেতিবেদনে আসছে।

এই সংবাদটি 1,070 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com