সোমবার, ০৯ এপ্রি ২০১৮ ১২:০৪ ঘণ্টা

কোটা সংস্কারের যে ৫ দফার জন্য আন্দোলন

Share Button

কোটা সংস্কারের যে ৫ দফার জন্য আন্দোলন

ডেস্ক রিপোর্ট:  বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার আন্দোলন পরিষদের ব্যানারে আন্দোলন করে আসছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি, কোটা বাতিল নয়, সংস্কার চাই। এজন্য তারা ৫ দফা দাবি ঘোষণা করেছেন।

সেগুলো হলো-
১. কোটার পরিমাণ ৫৬ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করা।

২. কোটার যোগ্য প্রার্থী না পেলে শূন্যপদে মেধায় নিয়োগ।

৩. বিশেষ নিয়োগ পরীক্ষা না নেওয়া।

৪. সকলের জন্য অভিন্ন বয়সসীমা নির্ধারণ করা।

৫. চাকরির নিয়োগ পরীক্ষায় কোটা সুবিধা একাধিকবার ব্যবহারের সুযোগ না দেয়া।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দেশের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে প্রচলিত বিদ্যমান কোটা ব্যবস্থায় মাত্র ২.৬৩ শতাংশ নাগরিকের জন্য রয়েছে ৩৬ শতাংশ কোটা। এর মধ্যে ১.২ শতাংশ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য শতকরা ০৫ ভাগ, ১.৪০ শতাংশ প্রতিবন্ধীর জন্য ০১ ভাগ এবং ০.১৩ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের পোষ্যদের জন্য শতকরা ৩০ ভাগ কোটা।

এছাড়া ১০ ভাগ নারী এবং ১০ ভাগ জেলা কোটাসহ সরকারি প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিতে কোটার পরিমাণ ৫৬ ভাগ। বাকি মাত্র ৪৪ শতাংশ পদের জন্য লড়াই করতে হয় লাখ লাখ মেধাবী চাকরি প্রত্যাশীকে।

তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণিতের এই কোটার পরিমাণ আরও ভয়াবহ বলে অভিযোগ করছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি, এই দুই শ্রেণির চাকরিতে কোটার পরিমাণ প্রায় ৭০ শতাংশ।

এই সংবাদটি 1,050 বার পড়া হয়েছে

পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত।  পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন।  ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে।  সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন।  ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন
পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন। ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন। ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন