ছাতকে সংঘর্ষের ঘটনায় সিলেটে উত্তেজনা

প্রকাশিত: ৬:২৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭

Image may contain: 7 people, crowdImage may contain: one or more people and crowdসিলেট রিপোর্ট: ছাতকে কওমী ও ফুলতলীরপীরের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সিলেট নগরীতে ঊভয় পক্ষের অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেযেতে পারে এমন আশংকাপ্রকাশ করেছেন সচেতনমহল।
স্থানীয় সূত্র জানায়, ওয়াজ মাহফিল আয়োজন নিয়ে কওমী ও ফুলতলী পীরের অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা থেকে দুপুরে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। প্রথম দিকে ছাতক হাইস্কুল মাঠে সংঘর্ষ শুরু হলেও পরে তা পুরো শহরে ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় চারঘন্টা চলা সংঘর্ষের সময় শহরের বেশ কিছু অফিস-ব্যবসা প্রতিষ্ঠানেও ভাঙচুর চালানো হয়। সোমবার বেলা ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ছাতক উপজেলা সদরের বাস স্টেশন এলাকায় দফায় দফায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
এদিকে, ছাতকে কওমী পন্থী আলেমদের মাহফিলে ‘ফুলতলীপীরের সর্মথকদের হামলা’ ও নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে আজ মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারী)  মঙ্গলবার সকালে জামিয়া কাসিমুল উলুম দরগাহে হযরত শাহজালাল (র) এর মাদরাসায় সিলেটের র্শীষ আলেম ও কওমী মাদরাসার প্রতিনিধিদের এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাদ আসর সিলেটবেন্দরবাজারস্থ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে। শায়খুল হাদীস মুহব্বুল হক গাছবাড়ীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, জামিয়া মাহমুদিয়া সুবহানীঘাটের মুহতামিম মাওলানা শফিকুল হক আমকুনী, দরগাহ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়া, বন্দরবাজার জামে মসজিদের খতীব মাওলানা মুশতাক আহমদ খান, মাওলানা রেজাউল করিম জালালী, অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান সিদ্দিকী, প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আবুল হাসান ফয়সল,মাওলানা সিরাজুল ইসলাম সিরাজী,মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা শাহ মমশাদ, মাওলানা জাহিদ প্রমুখ। মঙ্গলবার বাদ আছর ইত্তেহাদে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের ব্যানারে কওমী পন্থী বিপুল সংখক ছাত্র-আলেম বন্দরবাজার জামে মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কোর্টপয়েন্টে পথ সভায় মিলিত হয়।  পথ সভায় বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও মাদরাসার শিক্ষকগন কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারন করে বক্তব্য রাখেন। বক্তারা বুধবার কোর্টপয়েণ্টে প্রতিবাদ সমাবেশ এবং  ২ মার্চ আলিয়া মাঠে সমাবেশ করারও  ঘোষণা দেন। ইত্তেহাদে আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত সিলেটের যুগ্ম সদস্য সচিব অধ্যক্ষ হাফিজ আব্দুর রহমান সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে ও সদস্য আলহাজ¦ মাওলানা এমরান আলমের পরিচালনায় সমাবেশ বক্তারা বলেন, শান্তিপূর্ণ তাফসির মাহফিলে হামলা করে প্রমাণ করেছে তারা ইসলাম ও মুসলমানদের দুশমন। এরা বিভিন্ন নামে ও রূপে সমাজে ফিৎনা সৃষ্টি করে থাকে। এদের ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান। বক্তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যারা ধর্মপ্রাণ মুসল্লির উপর হামলা চালিয়ে নিহত ও আহত করেছে তারা প্রকৃত আশেকে রসূল সা. হতে পারে না। এরা কুফরীতে লিপ্ত। বক্তরা হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন বলেন, আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে খুনী-সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার না করলে, সিলেট আলিয়া মাদরাসা মাঠে তাদের সম্মেলন করতে দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন। বক্তারা  ১ মার্চ বুধবার বেলা ২টায় নগরীর সিটি পয়েন্টে খুনীদের শাস্তির দাবীতে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশে দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের জনগণকে উপস্থিত থাকার আহবান জানানো হয়।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন ইত্তেহাদে আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত সিলেটের সদস্য মাওলানা শামসুদ্দিন মুহাম্মদ ইলিয়াছ, অধ্যক্ষ জাহিদ উদ্দিন চৌধুরী, কে.এম আব্দুল্লাহ আল মামুন, মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা আহমদ ছগির, মাওলানা ক্বারী সিরাজুল ইসলাম, মুফতি রশিদ আহমদ, মাওলানা ছদরুল আমীন, মুফতি শামসুল ইসলাম,হাফিজ শাব্বির আহমদ রাজি, আমিন আহমদ রাজু, মাওলানা আরিফুল হক ইদ্রিস, মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, মাওলানা সাইফুর রহমান, মাওলানা লুৎফুর রহমান, এম. বেলাল আহমদ চৌধুরী, মুজাহিদুল ইসলাম, মাওলানা আবু সুফিয়ান, ছাদিক ছালিম, মনছুর বিন সালেহ প্রমুখ।

অপর দিকে,সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক শানে রিসালত মহাসম্মেলন আগামীকাল (২ মার্চ) বৃহস্পতিবার শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। আজ এক বিবৃতিতে ফুলতলী পীরের অনুসারীগন বলেছেন যে কোন মুল্যে বৃহস্পতি ও শুক্রবার সকাল ১১ টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন উস্তাযুল উলামা ওয়াল মুহাদ্দিসীন, মুরশিদে বরহক হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দীন চৌধুরী বড় ছাহেব কিবলাহ ফুলতলী।
মাহফিলে বিদেশ থেকে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সায়্যিদ আল হাবীব উবায়দুল্লাহ আল আত্তাস (মক্কা মুকাররামা), ড. শায়খ নাজী বিন রাশিদ আল আরাবী (বাহরাইন), ড. শায়খ মুহাম্মদ ইয়াহইয়া আল কাত্তানী (মিশর), সায়্যিদ আল হাবীব ফয়সল আল কাফ (জেদ্দা), আল্লামা মুফতী মুহাম্মদ ইরশাদ হুসাইন (ডেনমার্ক), ড. মুহাম্মদ শাআইরুল্লাহ খান রামপুরী (ভারত), শায়খ মারওয়ান ইবনে সাদাকাহ ওয়াযযান (মক্কা মুকাররামা) প্রমুখ।

এছাড়া গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিক্ষামন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম নাহিদ, মশুরীখোলার পীর ছাহেব আলহাজ্জ শাহ আহসানুজ্জামান, উজানডিহির পীর ছাহেব সায়্যিদ মোস্তাক আহমদ আল মাদানী, সায়্যিদ জুনাইদ আহমদ আল মাদানী, দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক আলহাজ্জ এএমএম বাহাউদ্দীন, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আহসান উল্লাহসহ দেশ-বিদেশের আরো অনেক সম্মানিত পীর-মাশায়িখ, আলিম-উলামা, ইসলামী চিন্তাবিদ, শিক্ষাবিদ মাহফিলে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত হবেন।
এতে সর্বস্তরের মুসলিম জনতার উপস্থিতি কামনা করেছেন আন্তর্জাতিক শানে রিসালত মহাসম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী ও সদস্য সচিব মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী ফুলতলী।

এই সংবাদটি 213 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com