নলুয়ার ও মইয়ার হাওর পানির তলে !

প্রকাশিত: ৩:১২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৫, ২০১৭

নলুয়ার ও মইয়ার হাওর পানির তলে !

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:
জেলার সর্ববৃহৎ জগন্নাথপুরের নলুয়া হাওরের ফসলডুবির ঘটনায় গতকাল আরো দুইটি হাওরের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। উপজেলার দ্বিতীয় বৃহৎ মইয়ার হাওরের নারিকেল তলা এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার দুইটি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে হাওরে পানি প্রবেশ করছে। গত শনিবার নলুয়ার হাওরের কয়েকটি বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ায় ইতিমধ্যে মইয়ার হাওরে পানি ঢুকে পরে। মঙ্গলবার ওই হাওরের দুইটি বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে হাওরের পুরো ফসল পানিতে তলিয়ে যায়। এতে ৪ হাজার হেষ্টর বোরো ফসলের ক্ষতি হয়েছে বলে স্থানীয় কৃষকরা জানিয়েছেন। এদিকে আশারকান্দি ইউনিয়নের মোকামের ঢালার বাঁধ ভেঙ্গে কালনীচর হাওরের ফসল পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে বলে কৃষকরা জানান।
মইয়ার হাওরের কৃষক জমির মিয়া জানান, দু’টি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে হাওরে পানি প্রবেশ করছে। আমি ২০ কেদারা জমিতে চাষাবাদ করেছি। ক্ষেতের ফসল পাকার আগেই সব ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।
উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের
চেয়ারম্যান শাহ আবু ইমানী জানান, মোকামের ঢালার বাঁধ ভেঙ্গে বানাইয়ার হাওর, ঐয়ারকোণা, পিলিয়ার হাওরের প্রায় ১ হাজার ৫ শত একরের ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়ে গেছে। তিনি জানান, এরই মধ্যে ইউনিয়নের সব ক’টি হাওরের ফসল ডুবে গেছে।
কৃষকরা জানান, গত ২/৩ বছর ধরে হাওরের আবাদ করা একমাত্র বোরো ফসল প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে ধান গোলায় তুলতে পারেননি। এবছর পানি উন্নয়ন বোর্ডের দুর্নীতিবাজের কারণে বেড়িবাঁধগুলোতে নি¤œমানের কাজ করায় কয়েকদিনের ভারি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে উপজেলার প্রধান নলুয়ার হাওরসহ ছোটবড় সব কটি হাওরের ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।
জগন্ন্াথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার জানান, এ বছর নলুয়া, মইয়ার ও পিংলার হাওরসহ ছোট বড় ১৫টি হাওরে ২৫ হাজার হেক্টরে বোরো ফসলের আবাদ করা হয়েছে। হাওরের ফসলডুবির ক্ষয়ক্ষতি এখনো নির্ণয় করা হয়নি।

এই সংবাদটি 220 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com