ড.কবিরের কুশপুত্তলিকা দাহ করলো যুবলীগ

প্রকাশিত: ১২:৩০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০১৭

ড.কবিরের কুশপুত্তলিকা দাহ করলো যুবলীগ

সিলেট রিপোর্ট:
সীমান্তিকের ড.আহমদ আল কবিরের রাহুমুক্তির দাবি জানিয়েছে সিলেটের জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ। এদাবিতে দুই উপজেলা যুবলীগ নেতাকর্মীরা শুক্রবার সন্ধ্যায় কানাইঘাট ও জকিগঞ্জে ড.আহমদ আল কবিরের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিল শেষে দুই উপজেলায় ড. আহমদ আল কবিরের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন তারা। পাশাপাশি জকিগঞ্জ ও কানাইঘাটে ড. আহমদ আল কবিরকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন। এ নিয়ে  দুই উপজেলায় যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা বিরাজন করছে এবং শুক্রবার সন্ধ্যায় কানাইঘাট সদরে যুবলীগ নেতাকর্মীদের সাথে ড. আহমদ আল কবির সমর্থকদের মারামারি ও সংঘর্ষ ঘটে বলে খবর পাওয়া গেছে।
এদিকে ড. আহমদ আল কবির গঠিত জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা যুবলীগ কমিটি প্রত্যাখ্যান করে কানাইঘাট ও জকিগঞ্জ যুবলীগ নেতাকর্মীরা ৩১মার্চ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি বরাবরে এক প্রতিবাদপত্র প্রেরন করেন। প্রতিবাদপত্রে দুই উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দের অভিযোগ, বাংলাদেশ সরকারের অর্থমন্ত্রীর ভাগ্নি জামাতা আহমদ আল কবির জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা যুবলীগকে ধবংস করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন। দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের বাদ দিয়ে বিএনপি-জামায়াত শিবির থেকে আগত বসন্তের কোকিলদের দিয়ে তিনি দুই উপজেলা যুবলীগের কমিটি গঠনের পায়তারা করছেন। দলের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে ব্যবসায়িক ও ব্যক্তি স্বার্থকেই প্রধান্য দিয়ে তিনি কমিটি গঠনে তৎপর হয়ে উঠেছেন।

প্রতিবাদপত্রে জাকিগঞ্জ ও কানাইঘাট উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দের অভিযোগ,  ড.আহমদ আল কবির মূলত আওয়ামী ঘরানার কেউই নন। তিনি সীমান্তিক নামের একটি এনজিও’র চীফ পেট্রোন। আজীবন জামায়াত-বিএনপির স্বার্থে আত্মনিবেদিত ড. আহমদ আল কবির এখন আওয়ামী ঘরানায় বসন্তের কোকিল। তিনি ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রাজনেতিক সচিব সাজাপ্রাপ্ত পলাতক হারিছ চৌধুরীর প্রেস সচিব। তারা জানান, ১৯৭১সালে ও ১৯৯১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত ড. আহমদ আল কবির সিলেট-৫ আসনের নির্বাচনে তিনি বিএনপি’র প্রার্থী হারিছ চৌধুরীর প্রেস ও প্রচার সচিবের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। বিএনপি-জামায়ত জোট ক্ষমতায় থাকাকলীন তিনি সব সময় হারিছ চৌধুরী একান্ত সচিব হয়ে জকিগঞ্জ-কানাইঘাটসহ সিলেটের সকল অনুষ্টান ও প্রেগ্রামে তার সাথেই থাকতেন ।
বিগত ২০০৪ সালে চারদলীয় জোট সরকারের পতন আন্দোলনে দেশের অধিকাংশ এনজিও আন্দোলনে  সমর্থন দিলেও ড. আহমদ আল কবির তাঁর এনজিও সীমান্তিকসহ কয়েকটি প্রতিষ্টান নিয়ে চারদলীয় জোট সরকারের তোষামোদে ব্যতিব্যস্ত ছিলেন।
প্রতিবাদ পত্রে উপজেলা নেতৃবৃন্দ ড. আহমদ আল কবিরের দেয়া কমিটি প্রত্যাখ্যান করে জকিগঞ্জ ও কানাইঘাটসহ সিলেট জেলা যুবলীগকে  হারিছ চৌধুরীর আত্মার আত্মীয় ড. আহমদ আল কবিরের রাহুমুক্ত করার দাবি জানান।
প্রতিবাদ পত্রে স্বাক্ষর করেন সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি  আব্দুস ছালাম।

e4

এই সংবাদটি 810 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com