রবিবার, ০২ সেপ্টে ২০১৮ ০৪:০৯ ঘণ্টা

সুনামগঞ্জে বিএনপির ৩২ নেতাকর্মী আটক

Share Button

সুনামগঞ্জে বিএনপির ৩২ নেতাকর্মী আটক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর, জামালগঞ্জ ও দিরাই উপজেলায় ‘সরকারের বিরুদ্ধে গোপন বৈঠকে নাশকতার পরিকল্পনার’ অভিযোগে আলাদাভাবে অভিযান চালিয়ে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৩২ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয় বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়।

আটককৃতরা হলেন তাহিরপুর উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মো. রহুল আমিন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. মাহবুবুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. সাজিদুল হক, সদস্য মো. নবাব আলী, উপজেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মো. ফেরদৌস আলম ও সাধারন সম্পাদক এমদাদুল হক।

অপরদিকে দুপুরে জেলার দিরাই উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে শহরের বিএনপির কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিলটি বের হয়ে বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ শেষে থানা পয়েন্টে আসলে পুলিশ মিছিলে বাধা দেয় এবং লাঠিচার্জ ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এতে কয়েকজন আহত হন। পুলিশ এ সময় যুবদল ও ছাত্রদলের ৭ জন নেতাকর্মীকে আটক করেন।

আহতরা উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক হুমায়ুন কবির তালুকদার, পৌর যুবদলের আহবায়ক লিপন হাসান চৌধুরী, জেলা ছাত্রদলের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক ও জেলা যুবদল নেতা মহি উদ্দিন মিলাদ, কলেজ ছাত্রদল নেতা শাহিনুর রহমান শাহিন ও নাইম ইসলাম সহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী।

আটককৃতরা হলেন দিরাই উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র আহবায়ক আবু হাসান চৌধুরী সাজু, উপজেলা স্বেচ্ছাসবক দলের নেতা সিজিল মিয়া তালুকদার, উপজেলা যুবদল নেতা তুফায়েল আহমদ, রিজু মিয়া, এনামুল হক, আজিজুল মিয়া, আব্দুল আহমদ। এ ঘটনার পর চতুর্দিকে আতংক ছড়িয়ে পড়ে, দিরাই বাজারে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এদিকে জেলার জামালগঞ্জ উপজেলা বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, কৃষক দল, শ্রমিক দল ও অঙ্গ সংগঠন উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে বর্ণাঢ্য র‌্যালী শেষে সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এসে সভায় মিলিত হয়ে।

উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি মো. মফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ছাত্র নেতা মেহেদী হাসান রোকন এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মো. সিরাজ মিয়া। বিশেষ াতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. শাহ জাহান মিয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার চৌধুরী রানা, সহ সভাপতি শফিকুর রহমান, বিএনপির নেতা মো. আখতারুজ্জামান তালুকদার, মো. নুর মিয়া, জাকির ভুঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরে আালম ফরাজী, যুব বিষয়ক সম্পাদক মো. মাসুক মিয়া, মৎস্য সম্পাদক মো. জয়নাল আবেদীন, দপ্তর সম্পাদক শামছুজ্জামান ধন মিয়া। যুবনেতা হাসিন আহমেদ, ছাত্র নেতা নাদীম, মোনায়েম, ইফতেখার চৌধুরী, জাকি, আতিকুর রহমান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আজ থেকে ৩৮ বছর পূর্বে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ রাষ্ট্র পতি জিয়াউর রহমান এক দলীয় বাকশালী শাসন ব্যবস্থা থেকে বাংলার মানুষকে মুক্ত করতেই বহুদলীয় গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে ছিলেন। তার নিজ হাতে গড়া এ দেশের মাটি ও মানুষের প্রাণের সংগঠন বিএনপিকে এই সরকার ধ্বংস করার চেষ্ঠা করছে। বর্তমান সরকার গণতন্ত্রকে হরন করে মানুষের বাক স্বাধীনতা কে কেড়ে নিতে চাইছে। এই সরকার বিনা কারণে বিএনপির নেতা কর্মী ও সমর্থক সহ সাধারন জনগনকেও মিথ্যা মামলার আসামী করে জেলে পাঠাচ্ছে। বক্তারা গ্রহণযোগ্য নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় নির্বাচন দিয়ে জনমত যাচাই এর আহবান জানান। তারা বেগম খালেদা জিয়ার ও তারেক জিয়া সহ সকল নেতা কর্মীকে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি দিতে সরকারের প্রতি আহবান জানান।

উপজেলা বিএনপির দায়ত্বিশীল সূত্রে জানা গেছে, অপর একটি বিএনপির মিছিল থেকে ৭ জন বিএনপির কর্মীকে আটক করেছে জামালগঞ্জ থানা পুলিশ। এ রির্পোট লিখাপর্যন্ত তাদের নাম ঠিকানা যানা যায়নি। আটকের সত্যতা স্বীকার করেছেন জামালগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত মো. মিজানুর রহমান।

এই সংবাদটি 1,018 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com