সোমবার, ০৩ সেপ্টে ২০১৮ ০৮:০৯ ঘণ্টা

মিয়ানমারের ২০ শীর্ষ কর্মকর্তা ও সংস্থা নিষিদ্ধ

Share Button

মিয়ানমারের ২০ শীর্ষ কর্মকর্তা ও সংস্থা নিষিদ্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সর্বাধিনায়ক সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং, সামরিক বাহিনীর টেলিভিশিন চ্যানেল মায়াওয়াদি টিভিসহ দেশটির ২০ ব্যক্তি ও সংস্থাকে নিষিদ্ধ করেছে। জাতিসংঘের সত্যানুসন্ধানী দল (ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন) গতকাল সোমবার দুপুরে রোহিঙ্গা গণহত্যার তথ্য প্রকাশ করার পরপরই ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে ওই ব্যবস্থা নেয়। ওই ব্যক্তি ও সংস্থাগুলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক মাধ্যম ব্যবহার করে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়ায় এবং গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও যুদ্ধাপরাধে উসকানি দেয়।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ গতকাল এক বিবৃতিতে জানায়, তারা মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যার সঙ্গে সম্পৃক্ত মোট ১৮টি ফেসবুক, একটি ইনস্টাগ্রাম আইডি ও ৫২টি ফেসবুক পেজ মুছে ফেলেছে। এই অ্যাকাউন্টগুলোর প্রায় এক কোটি ২০ লাখ অনুসারী ছিল। মুছে ফেললেও অ্যাকাউন্টগুলোর তথ্য-উপাত্ত ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জব্দ করেছে। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র বলেছে, উসকানি দেওয়া এই অ্যাকাউন্টগুলোর তথ্য-উপাত্ত ভবিষ্যতে তাদের জবাবদিহি নিশ্চিত করতেও ভূমিকা রাখবে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানায়, এ মাসের শুরুতেই তারা ঘৃণা ও অসত্য তথ্য প্রচার প্রতিরোধে উদ্যোগ নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল। ধীরগতিতে হলেও তারা কাজ শুরু করেছে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন মিয়ানমারে যাদের গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রমাণ পেয়েছে তাদের আর আমাদের সেবা ব্যবহার করে ধর্মীয় ও নৃতাত্ত্বিক উসকানি দেওয়ার সুযোগ দিতে চাই না। এরই অংশ হিসেবে আমরা ওই ব্যক্তি ও সংস্থাগুলোর সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ছয়টি ফেসবুক পেজ, ছয়টি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট মুছে ফেলেছি। আমরা যে ২০ জন ব্যক্তি ও সংস্থাকে নিষিদ্ধ করেছি, তাদের ফেসবুকে বা ইনস্টাগ্রামে অস্তিত্ব পাইনি।’ এর বাইরেও আরো ৪৬টি পেজ ও ১২টি অ্যাকাউন্ট মুছে ফেলার তথ্য দিয়ে ফেসবুক বলেছে, এসব আইডি বা পেজ থেকেও অসত্য তথ্য ছড়ানো হয়েছিল।

ফেসবুক বলেছে, তারা তাদের সাম্প্রতিক একটি অনুসন্ধানে দেখতে পেয়েছে, দৃশ্যত স্বাধীন সংবাদ ও মতামত বিষয়ক একটি পেজের আড়ালে মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর বার্তা প্রচার করা হয়েছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘ফেসবুকে এ ধরনের আচরণ নিষিদ্ধ। কারণ আমরা চাই জনগণ যাদের সঙ্গে সংযুক্ত আছে তাদের ওপর আস্থা রাখুক।’

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের বিবৃতিতে এরই মধ্যে মুছে ফেলা বেশ কয়েকটি অ্যাকাউন্ট ও পেজের ছবিও প্রকাশ করেছে। এগুলোর মধ্যে আছে ‘সিনিয়র জেনারেল অং মিন হ্লিয়াং’, ‘এমএম ডেইলি স্টার’ পেজ। ফেসবুক জানায়, ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়ানো কথাবার্তা শনাক্তকরণ প্রযুক্তি, ঘৃণা, বিদ্বেষমূলক তথ্য-উপাত্ত সম্পর্কে জানানোর ব্যবস্থাসহ আরো বেশি বেশি পর্যালোচনার সুযোগ রাখা হচ্ছে।

এই সংবাদটি 1,025 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com