সোমবার, ১০ সেপ্টে ২০১৮ ১১:০৯ ঘণ্টা

২০ দলের পূর্ণ সমর্থন বৃহত্তর ঐক্য গঠনে

Share Button

২০ দলের পূর্ণ সমর্থন বৃহত্তর ঐক্য গঠনে

ডেস্ক রিপোর্ট:

দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সকল গণতন্ত্রকামী দল ও সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বৃহত্তর ঐক্য গঠনে একমত পোষণ করেছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

রোববার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতাদের বৈঠক শেষে জোটের প্রধান সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান এ কথা জানান। বৈঠকটি প্রায় এক ঘণ্টা চলে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার আগে বলে গেছেন, গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য দেশের সকল গণতন্ত্রকামী রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও ব্যক্তির একটা বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। আমরা সেই ঐক্য গড়ে তোলার কাজ করছি।

তিনি বলেন, ‘২০ দল সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গঠনে সম্মত হয়েছে। এ বিষয়ে খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার আগে জাতীয় ঐক্যের যে কথা বলেছেন তাতেও সমর্থন জানিয়েছে ২০ দল।’

নজরুল ইসলাম খান আরও বলেন, ‘সভায় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দির মুক্তি, নির্দলীয় সরকারের অধীনে সংসদ নির্বাচন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে সংসদ ভেঙে দেওয়া, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, ইভিএম ব্যবহার না করা, নির্বাচনকালীন সময়ে সশ্বস্ত্র বাহিনী নিয়োগ, তারেক রহমানসহ রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় প্রত্যাহার, হয়রানি বন্ধসহ দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠায় দেশের সকল গণতন্ত্রকামী দল, সংগঠন ও ব্যক্তির প্রতি আহ্বান জানানো হয়।’

এর আগে সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এতে সভাপতিত্ব করেন।

২০ দলীয় জোটের আরেক শরিক দলের এক সভাপতি বলেন, ‘জোটের আলোচনার মূল বিষয় ছিল বৃহত্তর ঐক্য। যেকোনো মূল্যে জাতীয় ঐক্য গঠনে ২০ দলীয় জোট সম্মত হয়েছে। এ ছাড়া জোটের ঐক্য ধরে রাখার বিষয়েও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।’

যদিও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জোটের পক্ষ থেকে কোনো কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়নি। তবে সোমবারের মানববন্ধনসহ অন্যান্য কর্মসূচিতে জোটের শরিকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বৈঠকে জোটের প্রধান সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান, বিজেপির আন্দালিব রহমান পার্থ, জামায়াতের আবদুল হালিম, ইসলামী ঐক্যজোটের এম এ রকীব, খেলাফত মজলিশের আহমেদ আবদুল কাদের, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নুর হোসেন কাশেমী ,জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, এলডিপির রেদোয়ান আহমেদ, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, এনডিপির খোন্দকার গোলাম মূর্তজা, লেবার পার্টির দুই অংশের মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, এমদাদুল হক চৌধুরী, জাগপার তাসমিয়া প্রধান, ন্যাপ-ভাসানীর আজহারুল ইসলাম, মুসলিম লীগের এএইচএম কামরুজ্জামান খাঁন, পিপলস লীগের সৈয়দ মাহবুব হোসেন, সাম্যবাদী দলের সাঈদ আহমেদ, ডিএলের সাইফুদ্দিন মনি,ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, ইসলামিক পার্টির আবুল কাশেম চৌধুরী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের অপর অংশের মাওলানা মহিউদ্দিন ইকরাম উপস্থিত ছিলেন।

এই সংবাদটি 1,075 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com