সোমবার, ১০ সেপ্টে ২০১৮ ০১:০৯ ঘণ্টা

নেশার নাম ‘হোয়াটসঅ্যাপ’! শেষ লগ্নে বিয়েই ভেস্তে গেল মেয়ের

Share Button

নেশার নাম ‘হোয়াটসঅ্যাপ’! শেষ লগ্নে বিয়েই ভেস্তে গেল মেয়ের

ডেস্ক রিপোর্ট: বিয়ের ঠিক আগের মুহূর্তে বাতিল মেয়ের বিয়ে। কারণ জানলে অবাক হবেন। বিশ্বায়নের যুগে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটার ছাড়া এক কদম চলতেও হোঁচট খায় মানুষ। কিন্তু তার জন্য এই পরিমাণ খেসারত দিতে হবে তা উত্তরপ্রদেশের আমরোহার এক পরিবার স্বপ্নেও ভাবেনি।

কনে অতিরিক্ত হোয়াটসঅ্যাপ করেন বলে বিয়ে ভেস্তে গেল। তা-ও আবার বিয়ের দিনেই। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের থেকে এমনই জানা গিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, কনে ও তাঁর পরিবার বুধবার বরযাত্রীর জন্য অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু সঠিক সময়ে বরযাত্রী না আসায় কনের বাবা পাত্রের বাবাকে ফোন করেন। তখন পাত্রের বাবা জানিয়ে দেন তাঁরা বিয়ে বাতিল করে দিয়েছেন। কারণ হিসেবে জানান কনের হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রাম করার অতিরিক্ত ঝোঁকের ফলেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা।

পাত্রপক্ষের দাবি, বিয়ের লগ্নের আগেও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাট করছিলেন কনে। আমরোহা পুলিশের কাছে এই অভিযোগ জানিয়েছেন পাত্রপক্ষ।

যদিও পাত্রীপক্ষ এই অভিযোগ মেনে নেননি। তাঁদের দাবি, পণের দাবি না মেটাতে পারার কারণেই বিয়ের দিন বিয়ে ভেস্তে দিয়েছেন পাত্রপক্ষ। পাত্রীর বাবা উরজ মেহান্দি পাত্রের বাবার বিরুদ্ধে ৬৫ লক্ষ টাকা পণ চাওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এই সংবাদটি 1,049 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com