মঙ্গলবার, ১১ সেপ্টে ২০১৮ ০৯:০৯ ঘণ্টা

খলীফায়ে মাদানীর ইন্তেকালে জমিয়তের দোআ মাহফিল অনুষ্ঠিত

Share Button

খলীফায়ে মাদানীর ইন্তেকালে জমিয়তের দোআ মাহফিল অনুষ্ঠিত

রেজাউল কারিম: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর অন্যতম উপদেষ্টা‌, শায়খুল ইসলাম মাদানী রহ.’র এর বিশিষ্ট খলীফা প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন আল্লামা শায়খ নোমান রহ.’র রূহের মাগফিরাত কামনা ও দরজাবুলন্দী কামনা করে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর উদ্যোগে আজ বাদ মাগরিব পল্টনস্ত জমিয়ত মিলনায়তনে এক তাৎক্ষণিক দোআ মাহফিল আয়োজন করে৷

এসময় নেতৃবৃন্দের মাজে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, সহ সভাপতি শায়খুল হাদীস আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, হযরত মওলানা আব্দুর রব ইউসুফী, মাওলানা জুনায়েদ আল-হাবীব, যূগ্ম মহাসচিব হযরত মাওলানা হাফেজ মনজুরুল ইসলাম আফেন্দী, সহকারী মহাসচিব মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা সানাউল্লাহ মাহমূদী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি নাসিরুদ্দিন খান, দফতর সম্পাদক মাওলানা আব্দুল গাফফার ছয়গরি, ঢাকা মহানগর জমিয়তের শিল্প বিষয়ক সম্পাদক মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী, যুব জমিয়ত বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা রেজাউল কারীম, ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল হুজায়ফা ওমর, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদুল হক উমামা ও ঢাকা মহানগর সভাপতি মাওলানা বুরহান উদ্দিন ও সেক্রেটারী আব্দুর রাহমান নাদীমসহ কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরীর নেতৃবৃন্দ৷

এই সংবাদটি 1,090 বার পড়া হয়েছে

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: কানাইঘাটে কবরস্থানের পাশ থেকে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  শুক্রবার উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পাশের একটি গাছ থেকে আলমগীরের লাশ উদ্ধার করে কানাইঘাট থানা পুলিশ।  নিহত আলমগীর উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের তিনচটি নয়া গ্রামের আবুল হুসেনের ছেলে।  জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আলমগীর । শুক্রবার সকালে আলমগীরকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা । একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মা কুলসুমা বেগম তাদের পাশ্ববর্তী নিজ দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পূর্বপাশে একটি গাছের সাথে গলায় রশি লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় আলমগীরকে দেখতে পান। খবর পেয়ে সাড়ে ১২টার দিকে থানার সেকেন্ড অফিসার স্বপন চন্দ্র সরকার একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়না তদন্তের জন্য সিওমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।  আলমগীরের বাবা দরিদ্র রিক্সা চালক আবুল হোসেন জানান, তার ছেলের সাথে কারো শত্রুতা নেই। সে কেন আত্মহত্যা করেছে এ ব্যাপারে তিনি সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দিতে পারেন নি।  লাশ উদ্ধারকারী সেকেন্ড অফিসার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে আলমগীর আত্মহত্যা করেছে। ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
কানাইঘাট প্রতিনিধি :: কানাইঘাটে কবরস্থানের পাশ থেকে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পাশের একটি গাছ থেকে আলমগীরের লাশ উদ্ধার করে কানাইঘাট থানা পুলিশ। নিহত আলমগীর উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের তিনচটি নয়া গ্রামের আবুল হুসেনের ছেলে। জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আলমগীর । শুক্রবার সকালে আলমগীরকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা । একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মা কুলসুমা বেগম তাদের পাশ্ববর্তী নিজ দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পূর্বপাশে একটি গাছের সাথে গলায় রশি লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় আলমগীরকে দেখতে পান। খবর পেয়ে সাড়ে ১২টার দিকে থানার সেকেন্ড অফিসার স্বপন চন্দ্র সরকার একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়না তদন্তের জন্য সিওমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। আলমগীরের বাবা দরিদ্র রিক্সা চালক আবুল হোসেন জানান, তার ছেলের সাথে কারো শত্রুতা নেই। সে কেন আত্মহত্যা করেছে এ ব্যাপারে তিনি সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দিতে পারেন নি। লাশ উদ্ধারকারী সেকেন্ড অফিসার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে আলমগীর আত্মহত্যা করেছে। ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com