মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টে ২০১৮ ০৯:০৯ ঘণ্টা

অসুস্থ সৈয়দ আশরাফ ৯০ দিনের ছুটি পেলেন

Share Button

অসুস্থ সৈয়দ আশরাফ ৯০ দিনের ছুটি পেলেন

ডেস্ক রিপোর্ট:গুরুতর শারীরিক অসুস্থতার কারণে সংসদ সদস্য ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ৯০ বৈঠক দিবসের ছুটি মঞ্জুর করেছে সংসদ। মঙ্গলবার চিফ হুইপের মাধ্যমে জনপ্রশাসন মন্ত্রী ছুটির আবেদন করলে স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী তা সংসদকে অভিহিত করেন। পরে সংসদ অধিবেশনে আবেদনটি হ্যাঁ/না ভোটে দিলে পাস হয়।

স্পিকার সংসদকে জানান, জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি ১৭৯ এর ৩ বিধি অনুসারে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের পক্ষে চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ স্পিকারের কাছে‍ ছুটির আবেদনটি করেন।

স্পিকার আরো জানান, মাননীয় সংসদ সদস্য ও মাননীয় জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এর পক্ষে জাতীয় সংসদের মাননীয় চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজের নিকট হতে আমি একটি পত্র বা আবেদনপত্র পেয়েছি। আবেদনপত্রের বিষয় দশম জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ সদস্য এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্বাস্থ্যগত অসুস্থতা জনিত কারণে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের কার্য প্রণালী বিধি ১৭৯ এর ২ বিধি অনুসারে আজ ১৮ অক্টোবর ২০১৮ থেকে পরবর্তী ৯০ বৈঠক দিবসে অনুপস্থিতি ছুটির জন্য আবেদন করেছেন। মাননীয় সংসদ সদস্য বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ কার্য প্রণালী বিধির ১৭৯ এর ২ বিধি অনুসারে কোনো মাননীয় সংসদ সদস্যের অনুপস্থিতির ছুটি মঞ্জুরের আবেদন পাস করে শুনানীসহ বিতর্ক ব্যতিরেকে ভোটে দেয়ার বিধান রয়েছে।

স্পিকার আরো জানান, অতীতের রেওয়াজ পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, প্রথম জাতীয় সংসদের ২১ জানুয়ারি ১৯৭৪, ১৩ জুন ১৯৭৪, ২৬ জুন ১৯৭৫ এবং নবম জাতীয় সংসদের ১৮ মার্চ ২০১২ ও ৫ জুন ২০১৩ তারিখে সংসদের বৈঠকে কয়েকজন সংসদ সদস্যের অনুরুপ ছুটির নজির রয়েছে।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ছুটি মঞ্জুরের বিষয়টি ‍মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে বিবেচনা করতে সংসদ সদস্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ছুটির বিষয়টি সংসদে পেশ করলে তা হ্যাঁ/না ভোটে পাস হয়।
গুরুতর অসুস্থ হয়ে বর্তমানে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের বামরুনগার্ড হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিন ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন বলেও সংসদকে জানান স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী।

এই সংবাদটি 1,014 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com