মঙ্গলবার, ০৯ অক্টো ২০১৮ ০১:১০ ঘণ্টা

আল্লামা আহমদ শফীকে নিয়ে অনভিপ্রেত বিতর্ক বন্ধ হোক

Share Button

আল্লামা আহমদ শফীকে নিয়ে অনভিপ্রেত বিতর্ক বন্ধ হোক

মাওলানা মামুনুল হক:

কওমী মাদরাসা সনদের স্বীকৃতি বিল পাশ পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় হেফাজতে ইসলাম ও আল্লামা আহমদ শফীকে নিয়ে দেশের ধর্মীয় অঙ্গণে বিরাজ করছে চরম অস্থিরতা৷ উপরোক্ত বিষয়গুলো নিয়ে কওমী মহলের ভিতর ও বাইরের অনেককেই বিতর্কে জড়িয়ে পড়তে দেখা যাচ্ছে৷
চলমান এই বিতর্কে দেশপ্রেমিক ইসলামী শক্তির মাঝে বিরোধ ও বিভক্তি সৃষ্টির সমূহ আশংকা দেখা দিয়েছে৷ এমতাবস্থায় ইসলামপ্রিয় জনতা যেমন বিব্রতকর অবস্থার শিকার, তেমনি তরুণ প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে পড়ছে হতাশা৷ তাদের মধ্যে তৈরি হচ্ছে শীর্ষ ওলামা-মাশায়েখ ও ইসলামী নেতৃত্বের ব্যপারে অনাস্থা৷ সার্বিক অবস্থা দৃষ্টে চলমান এই পরিস্থিতিকে ইসলাম ও দেশের বিরুদ্ধে সুগভীর এক ষড়যন্ত্র বলেই মনে হচ্ছে৷ এই পরিস্থিতি সামাল দিতে না পারলে আল্লাহ না করুন সংশ্লিষ্ট সবাইকেই চরম মাশুল দিতে হবে৷ এজন্য আমাদেরকে ধৈর্য, সহনশীলতা ও অবিচলতার সাথে পরিস্থিতি উৎরাতে হবে৷

চলমান বিতর্ক ও আলোচনার প্রেক্ষিতে আমরা সকলকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই যে, আমীরে হেফাজত আল্লামা শাহ আহমদ শফী আজ শুধু একজন ব্যক্তি নন, বরং ওলামায়ে কেরামের শীর্ষ রাহবার ও দেশপ্রেমী ইসলামী জনতার ঐক্য ও সংহতির প্রতীক৷ তিনি বাংলাদেশে নাস্তিক্যবাদবিরোধী অভূতপূর্ব গণজাগরণের মহানায়ক৷ ইসলামবিরোধী অপশক্তির সাক্ষাৎ আতংক৷ দীর্ঘ কর্মজীবনে সাফল্যের ধাপগুলো একে একে অতিক্রম করে তিনি এখন অনন্য উচ্চতায় আসীন অবিসংবাদিত এক নেতা৷

সরলপ্রাণ এই মহান ব্যক্তির সর্বজন গ্রহণযোগ্যতা ও অভূতপূর্ব নেতৃত্বকে নিয়ে আজ দুটিপক্ষ অনভিপ্রেত টানা-হেঁচড়া শুরু করেছে৷ একটিপক্ষ তার বিপুল জনপ্রিয়তাকে পূঁজি করে ক্ষুদ্র স্বার্থ হাসিলের চেষ্টা করছে, তো অন্যপক্ষ নিজেদের ব্যর্থতা ও ক্ষোভের গ্লানি তার উপর আরোপের কসরত করছে৷

আফসোস, একজন নবতীপর অসুস্থ মহান বুযুর্গকে নিয়ে এ কেমন নিষ্ঠুর জুলুমের খেলা চলছে! আমরা উভয়পক্ষকে অনুরোধ জানাই, আল্লাহর ওয়াস্তে এই বিপজ্জনক আত্মঘাতি খেলা বন্ধ করুন৷ যারা নিজেদের অভিলাস পূর্ণ করতে আল্লামা আহমদ শফীর নামকে ঢাল বানাচ্ছেন, তারা নিজ পরিচয়ে জাতির সামনে জাহির হোন৷ আর যারা ব্যর্থতা ও ক্ষোভের গ্লানি সইতে পারছেন না, তারা নিজেদের অযোগ্যতা ও ব্যর্থতার কারণ অনুসন্ধান করুন৷ আল্লামা আহমদ শফীর অবস্থান ও বক্তব্যকে সরল পথে বিশ্লেষণ করুন৷

মনে রাখবেন, আল্লামা আহমদ শফী ইসলামী জাগরণের সিম্বল, তার উপর প্রতিটি আঘাতে উল্লসিত হয় ইসলামবিদ্বেষী, বাংলাদেশবিরোধী অপশক্তি! তাই শত্রুকে হাসানোর এই বোকামির পথ পরিহার করতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানাই ৷

কওমী সনদ স্বীকৃতির বিষয়ে কওমীবিরোধীরা ক্ষুব্ধ বা বেজার হলেও কওমীর প্রতিটি সন্তান সন্তুষ্ট৷ নিজেদের পূর্বসূরীদের পাশাপাশি স্বীকৃতি বাস্তবায়নের দীর্ঘ পথপরিক্রমায় সরকারের ইতিবাচক ভূমিকারও তারা অকপট প্রশংসা করে৷ বিশেষত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তৎপরতার জন্যে তারা তার কাছে সবিশেষ কৃতজ্ঞ৷ এভাবে পর্যায়ক্রমে ধীরে ধীরে আলেমসমাজের সাথে দীর্ঘ বৈরিতার অবসান ও সম্পর্কোন্নয়নে তিনি ও তার সরকার অব্যাহত ভূমিকা রাখবেন বলে আমরা আশাবাদী৷

কওমী ছাত্র-শিক্ষক সকলেই প্রধানমন্ত্রী ও সরকারকে ধন্যবাদ জানায় ও সকৃতজ্ঞ শুকরিয়া জ্ঞাপন করে৷ তবে ঘটা করে রাজনৈতিক মঞ্চ-ময়দানে সংবর্ধনার আয়োজন বিষয়ে কওমী ছাত্র-শিক্ষকদের অনেকেই বিব্রত বোধ করছে৷ সেজন্যে এমন আনন্দঘন উপলক্ষটি অনাকাঙক্ষিত বিভেদ এবং বিতর্কের বিষয়ে পরিণত হয়েছে৷
সুতরাং সংশ্লিষ্ট সকলকে এ বিষয়টি পুনরায় বিবেচনা করার জন্যে সবিনয় অনুরোধ করছি৷
Mamunul Haque এর ফেসবুক থেকে সংগৃহিত

এই সংবাদটি 1,816 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com