রবিবার, ০৪ নভে ২০১৮ ০৪:১১ ঘণ্টা

মাওলানা সামিউল হক হত্যা, আততায়ী ছিল দুইজন!

Share Button

মাওলানা সামিউল হক হত্যা, আততায়ী ছিল দুইজন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের প্রখ্যাত আলেম মাওলানা সামিউল হক হত্যার ঘটনার একদিনের মধ্যেই ঘটনার তদন্তে বড় রকম অগ্রগতি হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া তার দুই কর্মচারীর প্রাথমিক বর্ণনায় জানা গেছে, হত্যার সময় মাওলানার কামরায় দুজন আততায়ী অবস্থান করছিল। জং অনলাইন সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

সূত্র জানায়, মাওলানা সামিউল হকের সঙ্গে দুজন ব্যক্তি দেখা করতে আসে। দেখা করতে আসা দুজনই ছিল তাঁর পরিচিত। এর আগেও তারা মাওলানার সঙ্গে দেখা করতে এসেছে।

কর্মচারীরা তাদের জবানবন্দিতে বলেছে, আগন্তুক দুজন মাওলানা সামিউল হকের কাছে আবেদন করে যে, তারা একান্তে কিছু কথাবার্তা বলতে চায়। মাওলানা তখন দেহরক্ষী ও চালক-দুজনকেই খাবার কিনে আনতে বাইরে পাঠান। ১৫ মিনিট পর ফিরে এসে তারা দেখতে পায়, মাওলানা তার বিছানায় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন।

চালক ও দেহরক্ষী জানায়, রক্তাক্ত অবস্থাতেও মাওলানার শ্বাস-প্রশ্বাস চালু ছিল। তার জীবন বাঁচাতে তখন তারা রক্তাক্ত অবস্থায় মাওলানাকে নিকটস্থ একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মাওলানা সামিউল হকের হত্যাতদন্ত পুরোদমে চলছে। মাওলানার মোবাইলের কল রেকর্ডও যাচাই করা হচ্ছে। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ও তদন্ত কর্মকর্তারা রাওয়ালপিন্ডিতে মাওলানা সামিউল হকের বাসার সাক্ষ্য-আলামত জমা করেছেন। ডিএনএ পরীক্ষার জন্য তাঁর ব্যবহৃত ও কামরায় প্রাপ্ত জিনিসপত্রের ওপর বিদ্যমান আঙুলের ছাপও সংগ্রহ করা হয়েছে।

তদন্ত সংস্থা যেখানে মাওলানা থাকতেন, সেই বেসরকারি হাউজিং সোসাইটির রেকর্ডরুম থেকে সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজও নিয়ে গেছে।

অজ্ঞাতনামা আততায়ীদের বিরুদ্ধে রাওয়ালপিন্ডির একটি আদালতে মাওলানা সামিউল হক রহ.-এর ছেলে মাওলানা হামিদুল হক মামলা দায়ের করেছেন।

এই সংবাদটি 1,080 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com