বুধবার, ২৬ ডিসে ২০১৮ ০৫:১২ ঘণ্টা

সিলেটের ৬টি আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের সমর্থনে নিউইয়র্কে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

Share Button

সিলেটের ৬টি আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের সমর্থনে নিউইয়র্কে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্ক থেকে-রশীদ আহমদ:
বাংলাদেশের আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট জেলার ৬টি আসনের প্রার্থীদের পক্ষে নিউইয়র্কে এক প্রচারণা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ২৫শে ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাত আটটায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের টক অফ দ্যা টাউন রেস্টুরেন্টের হল রুমে আমরা সিলেটবাসী,নিউইয়র্ক এর ব্যানারে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের উপদেষ্টা জালাল আহমেদ।আমরা সিলেটবাসীর সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক ছাত্রদল নেতা মুহাম্মদ বুরহান উদ্দিন ও সাংগঠনিক সম্পাদক জামীল আনসারীর যৌথ উপস্থাপনায় শুরুতে কুরআনে হাকীম থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ শাহবাজ।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশন অফ গ্রেটার জৈন্তা,নিউইয়র্ক সভাপতি ও ইয়র্ক বাংলা সম্পাদক রশীদ আহমদ।মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু।বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খেলাফত মজলিস যুক্তরাষ্ট্র শাখার সংগ্রামী সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ আবুল কাশেম,জাগপা যুক্তরাষ্ট্র সভাপতি এ এসএম রহমত উল্লাহ,খেলাফত মজলিসষ্ট্র শাখার সেক্রেটারি ইউসুফ জসীম,তরুণ কলামিসট ও এম সাইফুর রহমান ফাউন্ডেশন এর সভাপতি আহবাব চৌধুরী খোকন ও সাংবাদিক এমদাদ হোসেন চৌধুরী দীপু।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন নিউজার্সী বিএনপির জয়েন্ট সেক্রেটারি লুৎফুর হোসেন আজাদ,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সোহেল আহমদ,আমরা সিলেটবাসী,নিউইয়র্ক এর সহকারী সেক্রেটারি আলম চৌধুরী, আলমগীর কবির শামীম,সাবেক ছাত্রনেতা হাফেজ শাহবাজ প্রমুখ।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুবনেতা সেলিম আহমদ,ইকবাল হোসেন ও তাসেক চৌধুরীসহ সিলেট জেলার ৬টি আসনের বিপুলসংখ্যক প্রবাসীরা।
প্রধান অতিথি যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু বলেন, নির্বাচন কমিশন ও সরকার নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করছে। তারা নির্বাচনকে ব্যর্থ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। ধীরে ধীরে নির্বাচন কমিশন প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যাচ্ছে।সারা দেশে ২৩দলীয় জোট ও ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মীদের ওপর হয়রানির মাত্রা বেড়ে গেছে।বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গণ গ্রেফতার, অন্যায় আক্রমণ, আহত ও হত্যা-গুম করা হচ্ছে।প্রতিনিয়ত ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, হামলা হয়রানি করা হচ্ছে । এসব মামলায় তাদেরকে গণ গ্রেপ্তার করা হচ্ছে ।সারা দেশে নির্বাচনের পরিবেশ যেভাবে অবনতি হচ্ছে , তাতে নির্বাচন আদৌ অবাধ ও সুষ্ঠু হবে কি না, তা নিয়ে জনগণের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ও নানাবিধ প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
তিনি নির্বাচন কমিশন, প্রশাসন ও আওয়ামীলীগকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডে নির্বাচনে দিন, দেখা যাবে জনগণ কাকে তাদের প্রতিনিধি হিসেবে চায় ? ইনশা আল্লাহ সুষ্ঠু, অবাধ এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সিলেটের ৬টি আসন সহ বৃহত্তর সিলেটের ১৯টি আসন পেয়ে বিপুল ভোটে ঐক্যফ্রন্ট বিজয়ী হবে এবং সরকার গঠন করবে ।তিনি এ সময় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটের সকল প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণার ক্ষেত্রে সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে প্রতিটি আসনে ধানের শীষের প্রার্থীদের পক্ষে সকল সংগঠনের নেতাকর্মীদেরকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে জোরালো ভূমিকা রাখার আহবান জানান।
বিশেষ অতিথি ছাত্র মজলিসের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও খেলাফত মজলিস যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ আবুল কাশেম বলেন, বিএনপির হাই কমান্ড লুনা ম্যাডামের আবেগের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, আমরাও ইলিয়াস আলী ও তাঁর পরিবারের প্রতি যথেষ্ট শ্রদ্ধা রাখি।তাই এম ইলিয়াস আলী ও তাঁর পরিবারের স্বপক্ষে জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য মুনতাসীর আলীকে সংসদে পাঠানো সময়ের অনিবার্য দাবি। আমরা আশা করব সময়ের ব্যবধানে লুনা ম্যাডাম এবং স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মীরা দেওয়াল ঘড়ির পক্ষেই ভুমিকা রাখবেন।
সিলেট ২ আসনের লুনা ম্যাডামের প্রার্থীতা বাতিল প্রসংগে বলেন, এটা সরকারের গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। আমরা এসকল কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। গণমানুষের সংগঠন খেলাফত মজলিস সব সময় ইলিয়াস আলী ও তাঁর পরিবারের পক্ষে সরব ভূমিকা রেখেছে এবং রেখে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, আমি মনে করি এই মুহুর্তে যেহেতু ধানের শীষের প্রার্থী সরকারের ষড়যন্ত্রের শিকার সেহেতু ২৩ দলীয় জোটের পরিক্ষীত শরীক দল খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহসচিব মুনতাসীর আলীকে জোটের সমর্থন দেওয়াই যুক্তিযুক্ত।
তিনি হবিগঞ্জ-৪ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড.আহমদ আবদুল কাদের সহ সারাদেশে সংসদ সদস্য পদপ্রার্থীদের উপর হামলা মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, আহমদ আবদুল কাদের ২৩দলীয় জোটের একজন শীর্ষ নেতা। তাঁর নির্বাচনীয় প্রচারণায় বাধা ফ্যাসিবাদের আরেক জলন্ত উদাহরণ।
সভাপতির বক্তব্যে জালাল আহমেদ বলেন,
দুঃশাসনের কবল থেকে জাতি মুক্তি চায়। তাই আগামী ৩০শে ডিসেম্বর ব্যালটের মাধ্যমে বাংলাদেশের জনগণ সমুচিত জবাব দিবে ইনশা আল্লাহ।উপস্থিত সবাইকে মোবারকবাদ জানিয়ে তিনি বলেন,আমরা আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে ব্যক্তিগত ভাবে প্রতিবাদ জানাতে হবে পাশাপাশি জালিম সরকারের বিরুদ্ধে সম্মিলিত ভাবেও রুখে দাঁড়াতে হবে।

এই সংবাদটি 1,050 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com