সোমবার, ১৮ মার্চ ২০১৯ ১১:০৩ ঘণ্টা

লালখান বাজার মাদরাসার ছাত্ররা পরীক্ষা দিতে পারবেন: বেফাক মহাসচিব

Share Button

লালখান বাজার মাদরাসার ছাত্ররা পরীক্ষা দিতে পারবেন: বেফাক মহাসচিব

ডেস্ক রিপোর্ট: সম্মিলিত কওমি শিক্ষাবোর্ড আল হাইয়াতুল উলয়া লিল-জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ কর্তৃক লালখান বাজার মাদ্রাসার টাকিমিল জামাত কেন্দ্রীয় পরীক্ষা স্থগিত করার জন্য বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকের মহাসচিব ও হায়াতুল উল্লার সদস্য মওলানা আবদুল কুদ্দুস। তিনি বলেন, পরীক্ষা স্থগিত করার অর্থ হচ্ছে সেই মাদ্রাসার কেন্দ্র স্থগিত করা, ছাত্রদের পরীক্ষা স্থগিত করা না। আজ তিনি মুঠোফোন এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা সব সময় ছাত্রদের অধিকার এবং স্বার্থ সচেতন। তাদের পরীক্ষা কোন অবস্থায় বন্ধ করা হবে। কিন্তু মাদ্রাসা পরিচালক ও কর্তৃপক্ষ দেওবন্দ ও উলামায়ে কেরামের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায় আমরা কেন্দ্র স্থগিত করেছি। ছাত্রদের পাশাপাশি অন্য পরীক্ষা কেন্দ্র পরীক্ষা করা হবে।

অভিযুক্ত ব্যক্তিদের নিজ অবস্থান থেকে সরে আসা হাইয়াতুল উল্লা আবার পরীক্ষা কেন্দ্র চালু হবে বলে তিনি বলেন।

লালখান বাজার মাদ্রাসার পরিচালক মুফতি ইজহারুল ইসলাম চৌধুরী তাবলীগ ইস্যুতে দারুল দেওবন্দ ও বাংলাদেশ জমহুর উলামায়ে কেরামের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ এবং বিতর্কিত তবলিগি মুরব্বি মওলানা সাদ-এর পক্ষে প্রকাশ্যে তার অবস্থান প্রকাশ করে তার মাদ্রাসার পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত হাইয়াতুল উলয়া।

গতকাল ঢাকার ফরিদাবাদ মাদ্রাসায় আল্লামা আহমদ শফির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বোর্ডের শীর্ষ বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

বোর্ডের সিদ্ধান্তে আরো বলা হয়, আরও কি এমন প্রতিষ্ঠান পরিচালকের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ পাওয়া যাবে তাদের মাদ্রাসারও পরীক্ষা স্থগিত করা হবে।

মওলানা ফরিদ উদ্দীন মাসুদের ব্যাপারেও কি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, না জানতে চেয়েছেন, তিনি বলেন, মুফতি ইযহার তার অবস্থান যেভাবে নিজেই স্পষ্ট করেছেন মওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ তার ব্যতিক্রম। কিন্তু তার বিরুদ্ধে যেহেতু বেশিরভাগ জোরালো অভিযোগ রয়েছে তাই হাইয়াতুল উল্লা বিষয় তদন্তের জন্য উচ্চতর একটি কমিটি গঠন করেছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার মাদ্রাসার বিষয়ে একই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসুদের অভিযোগ তদন্তের জন্য হাইয়াতুল উলয়ার কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী আহ্বায়ককে আট সদস্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে আরো রয়েছেন  আল্লামা আনোয়ার শাহ, মুফতি রুহুল আমিন, মওলানা আবদুল কুদ্দুস, মাওলানা আর্শাদ রাহমানী প্রমুখ।

এই পর্যন্ত লালখান ছাড়া আর কোন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায় না, হাইয়াতুল উলয়ার দফতর সম্পাদক মওলানা অসিউর রহমানের সাথে যোগাযোগ করে তিনি বলেন, ঢাকা ভাতার মওলানা আতাউর রহমান কর্তৃক পরিচালিত একটি মাদ্রাসার বিরুদ্ধে উলামায়ে কেরামের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। ব্যাপার তাদের বলা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, অভিযোগ গ্রহণ এবং তদন্ত দায়িত্ব মূলত বোর্ডের তারা তাদের প্রতিষ্ঠানের অভিযোগ সত্য সত্য প্রমাণিত এবং আমাদের জানাতে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করব। – ইস্লামাম টাইমস

এই সংবাদটি 1,301 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com