মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রি ২০১৯ ০৭:০৪ ঘণ্টা

শায়খে কৌড়িয়া’র একটি অমূল্য বয়ান

Share Button

শায়খে কৌড়িয়া’র একটি অমূল্য বয়ান

আব্দুল গাফ্ফার ছয়গড়ী : ২৪ শে ফেব্রুয়ারী ১৯৮৪ ঈসায়ী, রোজঃ শুক্রবার বাদ মাগরিব জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর জাতীয় কাউন্সিলের অধিবেশন জামেয়া হোসাইসিয়া আরজাবাদ মীরপুর ঢাকায় খলীফায়ে মাদানী হযরত শায়খ মাওলানা হাফেজ আমীনুল হক মাহমূদী (ময়মনসিংহ) এর সভাপতিত্বে আরম্ভ হয়।

কালামে পাক তিলাওয়াত করেন জনাব কারী আব্দুর খালিক সাহেব। উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন কায়িদুর উলামা আল্লামা হাফিজ আব্দুর করীম শায়খে কৌড়িয়া, সভাপতি জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ।

উদ্বোধনী ভাষণ
নাহমাদুহু ওয়া নুছাল্লি আলা রাসূলিহিল কারীম, আম্মা বাদ
সমস্ত প্রশংসা মহান আল্লাহর জন্য, রহমত ও সালাম রাসূলে করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ও য়া সাল্লামের উপর বর্ষিত হউক।

আমি আমার বক্তব্য দীর্ঘায়িত করবো না। জমিয়তের মুরব্বিগণ আজীবন ছহীহ দ্বীন ছহীহ আকীদা ও ছহীহ মসলকের কিয়ামের জন্য যাবতীয় মুছিবত বরদাশ্ত করেছেন। আমাদের আকাবিরীনকে দুনিয়ার কোন লোভ–লালসা নিজেদের আমল, নজরিয়া তথা সিরাতে মুস্তাকীম থেকে একটুও বিপথগামী করতে পারেনি। মুরব্বিদের সত্যিকারে অনুসারী হিসাবে তাদের সেই পদাঙ্ক অনুসরণের মধ্যেই আমাদের কামিয়াবী। অন্য কোন পথে নয়। বিভিন্ন ধরণের নাম সর্বস্ব শ্লোগানের অজুহাতে আহলে সুন্নতের ছহীহ আকীদা বিসর্জন দিয়ে কাজ করা আমাদের বা জমিয়তের দ্বারা সম্ভব নয়। আমাদের মুরব্বিদের সব কাজে বা কথায় এবং অন্য কাহারো সাথে সহযোগিতার মূল ভিত্তি ছিল পবিত্র কোরআনের বাণী

নেকী ও তাকওয়ার পথে সহযোগীতা কর, এবং নাফরমানী ও গোনাহের কাজে সহযোগিতা করনা। আমাদের উচিৎ পবিত্র কোরআনের এই বাণীকে সামনে রেখে অন্য কোন দল ও ব্যক্তির সহযোগিতা করা না করার সিদ্ধান্ত নেয়া। সরকারের নিকট সত্য কথা পৌঁছিয়ে দিয়ে অনৈসলামিক কার্যকলাপ ধরিয়ে দেয়া। মদ, জোয়া, হাইজী, নাচ, গান, এক কথায় যা দেশে প্রচলিত আছে রয়েছে এবং বর্তমান রাজনৈতিক সংকট দূরীকরনার্থে আমাদের বক্তব্য পেশ করার নিমিত্ব আমরা প্রেসিডেন্ট এর সাথে সংলাপে গিয়েছিলাম।

জমিয়ত তার জন্মলগ্ন থেকে সৎকাজের আদেশ এবং অসৎ কাজের নিষেধের দায়িত্ব পালন করে আসছে। এমনকি সিলেটে পবিত্র কোরআনের উপর কটুক্তির প্রতিবাদ করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত আমাদের অনেক কর্মী মামলায় জড়িত আছে।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ দেশের আলিম ও দ্বীনদার মুসলমানদের প্রাণপ্রিয় সংগঠনহিসাবে হক্কানী উলামায়ে কেরামের ঐক্যের প্রতি সব সময় গুরুত্ব দিয়ে আসছে। তাই আজ হতে ৬ বছর পূর্বে কাউন্সিল অধিবেশনে হযরত মাওলনা আজীজুল হক সাহেবকে সদর(সভাপতি) নির্বাচিত করা হয়। কিন্তু দুর্ভাগ্য যে, তিনি জমিয়তের সাংগঠনিক কাজে কোন তৎপরতা দেখাতে পারেন নি; বরং মিটিং ও সভাগুলোতে লোক পাঠিয়ে তাকে আনতে হত। কোন কোন সময় তিনি উপস্থিত হতেন না।

বিগত ১৯৮৩ সনের প্রথম দিকে জমিয়তের মজলিসে শুরার অধিবেশনে কাউন্সিল আহবান করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অপরপক্ষে জমিয়তের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী মেয়াদ কাল উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ায় নির্বাচনের নিমিত্তে কাউন্সিল অধিবেশন নআহবানের প্রয়োজন ছিল তাই আজকের এ অনুষ্ঠান।

গত রাস্ট্রপতি নির্বাচনে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ হযরত মাওলানা মুহাম্মদ উল্লাহ হাফিযজী হুজুরকে সমর্থন দিয়েছিল। কিন্তু দুঃখের সাথে বলতে হয় যে, হাফিযজী হুজুরের ইরান ইরাক সফর থেকে নিয়ে এ পর্যন্ত কে বা কারা নেপথ্যে থেকে কাজ করছে ও এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে যা আমাদের আকাবিরীনের মতাদর্শের সম্পূর্ণ বিপরীত। এ যেন আমাদের নিয়ে ছেলেখেলা আরম্ভ হয়েছে এবং তিনিও আমাদের সাথে একথায় একমত হয়েছেন। কিন্তু পরক্ষণে একটি অদৃশ্য মহল হাফেযজী হুজুরকে তার সিদ্ধান্তের উপর টিকে থাকতে দেয়নি। পত্র পত্রিকায় বিবৃতি লেখা হয় এক রকম পত্রিকায় প্রেরীত হয় অন্য রকম। মজলিসে শূরার সিদ্ধান্ত হত এক রকম, হাতে লেখা হত অন্য রকম। শেষাবদি অফিসের খাতাপত্র পর্যন্ত হয়ে গেল উদাও। আমি আজ পর্যন্ত এক আল্লাহর ওলীকে নিয়ে এ রকমের খেলা খেলতে দেখিনি।

এজন্যই আজ আমরা চিন্তা করতে বাধ্য হয়েছি যে, আমাদের আকাবিরীনের মতাদর্শকে টিকিয়ে রাখার জন্য হাফেযজী হুজুর ও খেলাফত আন্দোলন থেকে আলাদা হয়ে কাজ করার। তাই আপনিারা নিজ নিজ মতামত প্রকাশ করতঃ বাস্তবভিত্তিক কর্মসূচি নিয়ে এবং জমিয়তের নির্বাচন সুষ্টু ও সঠিকভাবে সমাধা করুন।

আমি মনে করি আজকের ২য় অধিবেশনে নির্বাচন হয়ে গেলে ভাল হয়। কেননা সংগঠনের মেয়াদ অনেক পূর্বেই শেষ হয়ে গেছে। কাজেই সর্ব প্রথম আমরা নির্বাচন করে নিলে আগামী কাল ২৫.০২.১৯৮৪ ঈসায়ী তারিখের প্রথম অধিবেশনে হাফেযজী হুজুর ও খেলাফত আন্দোলন সম্পর্কে আলোচনা পর্যালোচনার পর পথ খুজে বের করা সহজ হবে। এখানেই আমার বক্তব্য শেষ করছি।
আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। আমীন

সূত্রঃ খেলাফত আন্দোলন থেকে জমিয়তের সমর্থন প্রত্যাহার।

এই সংবাদটি 1,020 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com