বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯ ০৯:০৫ ঘণ্টা

যুব জমিয়ত’র ইফতার মাহফিলে নেতৃবৃন্দ: পীযূষকে গ্রেপ্তার করতে হবে

Share Button

যুব জমিয়ত’র ইফতার মাহফিলে নেতৃবৃন্দ: পীযূষকে গ্রেপ্তার করতে হবে

সিলেট রিপোর্ট: যুব জমিয়ত বাংলাদেশের উদ্যোগে মাহে রমজানের তাৎর্পযর্শীষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফল আজ ১৬ ই মে (১০ রমজান) পল্টনস্থ সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি হাফেজ মাওলানা তাফহীমুল হক এর সভাপতিত্বে ওসাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা ইসহাক কামালের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় অর্থসম্পাদক মুফতী জাকির হোসেন কাসেমী।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সাহিত্য সম্পাদক মাওলানা ফয়জূল হাসান খাদিমানী, বিশিষ্ট গবেষক কবি মাওলানা মুসা আল হাফিজ, জমিয়তের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, অফিস সম্পাদক মাওলানা আবদুল গাফফার ছয়ঘরী, যুব জমিয়তের সাবেক কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি মাওলানা গোলাম মাওলা, ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি, মুফতি নাছির উদ্দিন খান।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সবার খবর পত্রিকার সম্পাদক মাওলানা আব্দুল গাফফার, ইনসাফ সম্পাদক সাইয়্যেদ মাহফুজ খন্দকার, টাইমস সম্পাদক আবু সুফিয়ান, ছাত্র জমিয়তের সাবেক সহ সভাপতি হাফেজ বোরহান উদ্দীন, আরিফুর রহমান, ছাত্র জমিয়তের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হুযাইফা ওমর, ঢাকা মহানগর সাবেক প্রচার সম্পাদক মারজানুল বারী, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, ঢাকা মহানগর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নূর হোসাইন সবুজ, মহদী হাসান মারুফ প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা তাফহিমুল হক বলেন, সমপ্রীতি বাংলাদেশ’ এর প্রধান পীযূষ বন্দোপাধ্যায়কে অভিলম্বে গ্রেপ্তার এবং ‘সমপ্রীতি বাংলাদেশ’ নামক সন্ত্রাসী সংগঠনকে নিষিদ্ধ করতে হবে। দাড়ি,টুপিসহ ইসলামী লেবাস নিয়ে যারা কটুক্তি করে তারা এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের শত্রু। এদেশের যুব সমাজ কিছুতেই ইসলাম বিদ্ধেষী কার্যকলাম সহ্যকরবেনা। জীবনের শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে হলেও ইসলামের মান রক্ষা করা হবে।

ইফতার মাহফিলে নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামে আবশ্যক পালনীয় রাসুল (সা.)-এর সুন্নত দাড়ী রাখা, টাখনুর উপর কাপড় পরিধান করা করা সহ বেশ কিছু লক্ষনকে জঙ্গী লক্ষণ হিসেবে তুলে ধরে “সম্প্রীতি বাংলাদেশ” নামক সংগঠন। রাসুল (সা.)-এর সুন্নতকে জঙ্গীর আলামত হিসেবে তুলে ধরায় গভীর ক্ষোভ প্রকাশ এবং তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন যুব জমিয়ত নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, “সম্প্রীতি বাংলাদেশ” সম্প্রীতির নামে সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা করছে। বাংলাদেশে তারা ভারতীয় এজেন্ট হয়ে কাজ করছে। পীযুষের এধরনের বক্তব্য মুসলমানদের হৃদয়ে আঘাত করেছে এবং প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে।

১২মে জাতীয় দৈনিকে সম্প্রীতি বাংলাদেশ যেই বিজ্ঞাপন দিয়ে তা অস্বকীর করছে। এটা ভিত্তিহীন, যদি তারা এই বিজ্ঞাপন না দিয়ে থাকে তাহলে প্রশ্ন হলো তারা এই বিজ্ঞাপনের তদন্ত করছে না কেন? যদি সম্প্রীতি বাংলাদেশ এই বিজ্ঞাপন না দিয়ে থাকে এই বিজ্ঞাপন কারা দিল? “সম্প্রীতি বাংলাদেশ” এর দ্রুত তদন্ত করে জাতীর সামনে পরিস্কার করুক। অন্যথয় যুব জমিয়ত জনগনকে সাথে নিয়ে মাঠে নামতে বাধ্য হবে।

এই সংবাদটি 1,008 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com