রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ ০২:০৬ ঘণ্টা

একজন বাবার দেয়া সেরা উপদেশ

Share Button

একজন বাবার দেয়া সেরা উপদেশ

ডেস্করিপোর্ট:

১। কখনো কাউকে ছোট করে দেখবা না, নইলে তুমি ছোট হয়ে যাবে।

২। জুতো সেলাই করলে পা বাড়িয়ে দিয়ো না, বরং জুতোটা নিজে একবার মুছে দিয়ো। জুতো কিনতে গেলে নিজেই ট্রাইল দিয়ো।

৩। কখনো কামলা, কাজের লোক, বুয়া এসব বলে ডেকো না। মনে রেখো তারাও কারো না কারো ভাই, বোন, মা, বাবা। তাদের ভাই, আপা, চাচা, চাচী বলে ডেকো।

৪। পড়াশুনা করে জীবন উন্নত করো, কিন্তু কারো ঘাড়ে পা দিয়ে উপরে উঠার চেষ্টা করো না।

৫। কাউকে সাহায্য করে পিছনে ফিরে চেয়ো না, সে লজ্জা পেতে পারে।

৬। সবসময় শুধু দেওয়ার চেষ্টা করবা। মনে রাখবা প্রদান কারির হাত সর্বদা উপরেই থাকে।

৭। এমন কিছু করো না যার জন্য তোমার এবং তোমার পরিবারের উপর আঙুল উঠে।

৮। ছেলে হয়ে জন্মাইছো, দায়িত্ব এড়িয়ে যেয়ো না।

৯। তোমার কি আছে তোমার গায়ে লিখা নেই, কিন্তু তোমার ব্যবহারে আছে।

১০। কখনো মায়ের কথা শুনে বউকে এবং বউয়ের কথা শুনে মাকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করিও না। কাউকে ফেলতে পারবে না।

১১। যখন রাস্তায় হাটবে দেখে হাটবে, কেউ পড়ে গেলো কি না।

১২। কারো বাসায় নিমন্ত্রন খেতে গেলেও বাসায় এক মুঠো ভাত খেয়ে যাবে। যাতে কারো বাড়ির ভাতের অপেক্ষায় না থাকতে হয়।

১৩। কারো বাসার খাবার নিয়ে সমালোচনা করবে না, কেননা কেউই তার বাড়ির খাবার অস্বাদ করার চেষ্টা করেনা।

১৪। বড়দের মাঝে তোমার চেয়ারটা বরাদ্দ নেই, আছে ছোটদের মাঝে।

১৫। বড় নয়, মানুষ হবার চেষ্টা করবা। তবেই বড় হবা।

১৬। শ্বশুড় কিংবা শাশুড়িকে এতটা সম্মান দিয়ো যাতে তার মেয়েকে তোমার বাড়ি পাঠানোর জন্য উতলা থাকে।

১৭। বাইক কখনো জোড়ে চালিও না, তাতে তোমার কলিজার কাপুনি বেড়ে না গেলেও রাস্তার পাশে থাকা মানুষটার কাপুনি বেড়ে যেতে পারে।

এই সংবাদটি 2,343 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com