বৃহস্পতিবার, ০৮ আগ ২০১৯ ০৮:০৮ ঘণ্টা

কাশ্মীর নিয়ে বঙ্গবন্ধুর পথ অনুস্মরণ করুন: মাদানী কাফেলা

Share Button

কাশ্মীর নিয়ে বঙ্গবন্ধুর পথ অনুস্মরণ করুন:  মাদানী কাফেলা

সিলেট রিপোর্ট:

বঙ্গবন্ধুর ‘সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব’ অনুসারে কাশ্মীর নিয়ে নিজের অবস্থান ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানিয়েছেন মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন নগরী। বৃস্পতিবার এক বিবৃতিতে মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সভাপতি বলেন, কাশ্মীরে মানবিক সংকট চলঠে। আজ কয়েক দিন ধরে
কাশ্মীরে মানুষের খাবার নেই ,সবকিছু বন্ধ। এই জিম্মীদশা থেকে মুক্তির জন্য শান্তির বার্তাবাহক হিসেবে কাজ করতে পারে বাংলাদেশ।

বিবৃতিতে বলা হয়, ভারত শাসিত কাশ্মীর নিয়ে সম্প্রতি উত্তেজনা দেখা দিলেও সমস্যাটি দীর্ঘদিনের। ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে বেরিয়ে ভারত ও পাকিস্তান নামক দুই রাষ্ট্রের জন্মলঘ্ন থেকেই সংঘাত শুরু। ফলে উপমহাদেশ বা বিশ্বের বিভিন্ন রাজনীতিক নাড়া দিয়েছে কাশ্মীর ইস্যু। বাংলাদেশের স্থপতি ও স্বাধীনতা সংগ্রামের অবিসংবাদিত নেতা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও কাশ্মীর ইস্যুটি বেশ গুরুত্ব দিয়েছিলেন। কাশ্মীর সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দিয়েছিলেন।
বঙ্গবন্ধুর জীবনীগ্রন্থ ‘কারাগারের রোজনামচা’য় বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

কাশ্মীর নিয়ে শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন, ‘অত্যাচার আর গুলি করতে কেহ কাহারো চেয়ে কম পারদর্শী নয়। গুলি করে বা গ্রেফতার করে সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়। ভারতের উচিত ছিল গণভোটের মাধ্যমে কাশ্মীরের জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার মেনে নিয়ে দুদেশের মধ্যে একটি স্থায়ী শান্তি চুক্তি করে নেয়া।’

এই সংকটের সমাধানে বঙ্গবন্ধুর পরামর্শ ছিল, ‘পাকিস্তান ও ভারত সামরিক খাতে অর্থ ব্যয় না করে দুই দেশের অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য অর্থ ব্যয় করতে পারত। দুদেশের জনগণও উপকৃত হত। ভারত যখন গণতন্ত্রের পূজারি বলে নিজকে মনে করে তখন কাশ্মীরের জনগণের মতামত নিতে কেন আপত্তি করছে? এতে একদিন দুটি দেশই এক ভয়াবহ বিপদের সম্মুখীন হতে বাধ্য হবে।’
আমরা বাংলাদেশের শান্তিকামী জনতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কাছে দাবী জানাচ্ছি, তিনি যেনো পিতার পথ অনুস্মরণ করে কাশ্মীরী সমস্যা সমাধানে অনুরুপ ভূমিকা রাখেন।

এই সংবাদটি 1,323 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com