শুক্রবার, ০৯ আগ ২০১৯ ০৩:০৮ ঘণ্টা

কাশ্মীর ইস্যুতে মিছিলে মিছিলে উত্তাল সিলেট

Share Button

কাশ্মীর ইস্যুতে মিছিলে মিছিলে উত্তাল সিলেট

সিলেট রিপোর্টঃঃ
কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসনের প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় সিলেট কোর্ট পয়েন্টে হাজার হাজার মুসল্বিলী বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করেছে বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে।
শুক্রবার জুমার নামাজের পর নগরীর বিভিন্ন মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। সবকটি মিছিল এসে মিলে কোর্ট পয়েন্টে। এসময় বন্ধ হয়ে পড়ে যানচলাচলও।

এসময় কাশ্মীরি জনতার আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দেন ‍বিক্ষোরতরা।

বক্তারা বলেন, মুসলিম অধ্যুষিত কাশ্মীরকে স্বাধীনতা দেয়ার পরিবর্তে ভারত এখন কাশ্মীরের বিদ্যমান স্বায়ত্তশাসন টুকুও কেড়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটি মানবাধিকারের লঙ্ঘন। এসময় সবাই এক হয়ে প্রতিবাদের ঝড় তুলারও আহ্বান জানান তারা

আনজুমাাানে তালামিজে ইসলামিয়া, হিউম্যানিটি মুভমেন্ট অব বাংলাদেশের বিক্ষোভ মিছিলে একাত্মতা ঘোষণা করেছে মাদানী কাফেলা বাংলাদেশ।
হিউম্যানিটি মুভমেন্ট এর উদ্যোগে শুক্রবার (৯ আগস্ট) বাদ জুমআ বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে শুর“ হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্থানীয় সিটি পয়েন্টে গিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকার সাংবিধাদের ৩৭০ ধারা বাতিল করে কাশ্মীরীদের অধিকার হরন করেছে। রাজ্য প্রধানদের গ্রেফতার করে পর্যটকদের সরিয়ে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করে তাঁরা ক্লান্ত হয়নি। ১৪৪ ধারা জারী করে ইন্টারনেট পর্যন্ত বন্ধ করেছে। তাই কাশ্মীরের অসহায় মুসলমানদের পাশে দাঁড়ানো সকল মুসলমানদের নৈতিক দায়িত্ব।

হিউম্যানিটি মুভমেন্ট অব বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাওলানা সৈয়দ মুসাদ্দিক আহমদের সভাপতিত্বে, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই আল হাদী ও সেক্রেটারী খলিলুল্লাহ মাহবুবের যৌথ পরিচালনায় মিছিল পরবর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন- জামেয়া দার“ল কোরআন সিলেটের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল সাবেক এমপি এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জামেয়া দার“ল উলুম সিলেটের প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী।

মেয়র বলেন, বিজেপি সরকার প্রতিনিয়ত তাঁদের উপর অত্যাচার করছে। এসবের শেষ চাই। চাই কাশ্মীরের স্বাধীনতা। চাই আমাদের ভাই বোনের নিরাপত্তা, বেঁচে থাকার অধিকার। নেতৃবৃন্দ জাতীসংঘের নিরব ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। ভারত মুসলমানদের সহ্য করতে পারছে না, তাই তারা মুসলিম শূণ্য করতেই এধরণের নির্যাতনে পথ বেছে নিয়েছে। ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে বিনা উস্কানীতে মুসলিম নিধন, নির্যাতন, ধর্ষণ করছে কট্টরপন্থি হিন্দু সম্প্রদায়ের সন্ত্রাসী ও জঙ্গীরা।’ কাশ্মীরে আগ্রাসন মুসলিমবিশ্বকে স্তব্ধ করে রেখেছে।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- হিউম্যানিটি মুভমেন্ট অব বাংলাদেশের উপদেষ্টা আহমেদুর রহমান খান হিনু, মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, জামেয়া নাজাতুল উম্মাহর মুহতামিম মাওলানা তোফায়েল আহমদ উসমানী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা সদর“ল আমিন, জামেয়া দার“ল উলুম সিলেটের শিক্ষা সচিব মাওলানা এম বেলাল আহমদ চৌধুরী, মাওলানা এরশাদ খান আল হাবিব, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাফিজ সাব্বির আহমদ রাজি, হাফিজ কবির আহমদ, হাফিজ শাহিদ হাতিমী, কায়ছার মাহমুদ আকবরী, জাফর ইকবাল, আবু বক্কর সিদ্দিক, মুহাফিজুল ইসলাম সাকিব, সাজ্জাদ হোসেন র“মন, সালমান আহমদ, তাজুল ইসলাম, তামিম আহমদ, মার“ফ আহমদ, শাহ আলম, ইউসুফ আল আজাদ, রিয়াজ উদ্দিন, নাইম আহমদ প্রমুখ।

এই সংবাদটি 1,347 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com