রবিবার, ০৮ সেপ্টে ২০১৯ ১২:০৯ ঘণ্টা

মোহন ভগবতের পর সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করলেন আরশাদ মাদানী

Share Button

মোহন ভগবতের পর সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করলেন আরশাদ মাদানী

ডেস্করিপোর্টঃ ভারতের জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের প্রেসিডেন্ট, দারুল উলুম দেওবন্দের মুহাদ্দিস আল্লামা আরশাদ মাদানী হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের পর কংগ্রেস সভাপতি, রায়বরেলি উত্তর প্রদেশ সংসদ সদস্য সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন।
ভারতের গণমাধ্যম দ্যা ইনকিলাব পত্রিকার বরাতে জানা যায়, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় জমিয়তে উলামা হিন্দের সভাপতি মাওলানা আরশাদ মাদিনী সোনিয়া গান্ধীর বাসভবনে এ বৈঠক করেন। বৈঠকে কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা আহমেদ প্যাটেলসহ কংগ্রেসের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্র মতে জানা যায়, কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সাথে বৈঠককালে আল্লামা আরশাদ মাদানী ভারতের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা করেন। মোহন ভাগবতের সঙ্গে যে বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন, সে বিষয়গুলো নিয়েই আলোচনা করেন তিনি।
বৈঠকটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিলো বলে মনে করেন রাজনীতিবদগণ। কারণ আরএসএস প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাতের পর আল্লামা আরশাদ মাদানীর ব্যাপারে প্রচুর সমালোচনা করা হয়। কেন তিনি হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নেতার সঙ্গে দেখা করলেন। কিন্তু এ বৈঠকে কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাত করায় সমালোচকদের আলোচনার মোড় ঘুরে গেছে।

সূত্রমতে কংগ্রেস সভাপতির সাথে মাওলানা আরশাদ মাদনির এ বৈঠক এ বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছে যে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় তারা যে কোনও দল বা সংস্থার সাথে কথা বলতে প্রস্তুত রয়েছে।
আল্লামা আরশাদ মাদানী এর আগে ৫ আগস্ট দিল্লির তালকাটোরা স্টেডিয়ামে ও ১৫ আগস্ট দারুল উলূম দেওবন্দে স্পষ্টভাবে বলেছিলেন, তিনি দেশের মঙ্গলার্থে যে কোনও দলের সাথে কথা বলতে প্রস্তুত, জনগণ রাজনীতিবিধরা এতে সমালোচনা করলেও তার কিছু করার নেই।
সংঘের প্রধান মোহন ভাগবতের সাথে দেখা করার পরে কংগ্রেসের একাধিক মুসলিম নেতার সামালোচনার মুখে পড়েছেন আল্লামা আরশাদ মাদানী। অনেক কংগ্রেস নেতাও বারবার তার সমালোচনা করছিলেন।
ভোপাল থেকে কংগ্রেস পার্টির বিধায়ক আরিফ মাসউদ মাওলানা আরশাদ মাদনীকে একটি চিঠি লিখে আরএসএস প্রধানের সাথে তিনি কী বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন তা সমাজকে জানানোর দাবি করেছিলেন।
অন্যদিকে, উত্তর প্রদেশের সাহারানপুরের আরেক কংগ্রেস নেতা ইমরান মাসউদও মাওলানা আরশাদ মাদিনীকে লক্ষ্য করে, তাকে অভিযুক্ত করে বলেছিলেন যে মওলানা মাদানী সঙ্ঘের প্রধানের সাথে দেখা করে দারুল উলূম দেওবন্দের গৌরবময় ইতিহাসকে কলঙ্কিত করেছেন।
তবে গতকাল শুক্রবার মাওলানা মাদানী কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সাথে দেখা করায় সমালোচকদের প্রতিক্রিয়া পাল্টেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
সূত্র: দ্য ইনকিলাব

এই সংবাদটি 1,504 বার পড়া হয়েছে

বিশ্বের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে ফোর্বস ম্যাগজিন। এই তালিকার শীর্ষ একশ নারীর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। তালিকার ২৯তম অবস্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘকালীন সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে টানা তিনবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত নির্বাচনে তার দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংসদের ৩শ আসনের মধ্যে ২৮৮টিতেই জয় লাভ করে।  ১৯৮১ সাল থেকে টানা প্রায় ৩৮ বছর ধরে বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। এরপর থেকেই শক্ত হাতে দলকে নিয়ন্ত্রণ করছেন শেখ হাসিনা। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষার উন্নয়ন এবং স্বাস্থ্যসেবার প্রতি জোর দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।  ফোর্বসের তালিকায় প্রভাবশালী শীর্ষ ১০ নারীর তালিকায় আছেন অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ক্রিস্টিনে লেগারদে, নেন্সি পেলোসি, আরসুলা ভন দের লেয়েন, মেরি বারা, মেলিন্ডা গেটস, আবিগেইল জনসন, আনা পেট্রিসিয়া বোটিন, গিনি রোমেটি এবং মেরিলিন হিউসন। ২০১৮ সালে ফোর্বসের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনার অবস্থান ছিল ২৬তম।
বিশ্বের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে ফোর্বস ম্যাগজিন। এই তালিকার শীর্ষ একশ নারীর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। তালিকার ২৯তম অবস্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘকালীন সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে টানা তিনবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত নির্বাচনে তার দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংসদের ৩শ আসনের মধ্যে ২৮৮টিতেই জয় লাভ করে। ১৯৮১ সাল থেকে টানা প্রায় ৩৮ বছর ধরে বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। এরপর থেকেই শক্ত হাতে দলকে নিয়ন্ত্রণ করছেন শেখ হাসিনা। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষার উন্নয়ন এবং স্বাস্থ্যসেবার প্রতি জোর দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। ফোর্বসের তালিকায় প্রভাবশালী শীর্ষ ১০ নারীর তালিকায় আছেন অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ক্রিস্টিনে লেগারদে, নেন্সি পেলোসি, আরসুলা ভন দের লেয়েন, মেরি বারা, মেলিন্ডা গেটস, আবিগেইল জনসন, আনা পেট্রিসিয়া বোটিন, গিনি রোমেটি এবং মেরিলিন হিউসন। ২০১৮ সালে ফোর্বসের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনার অবস্থান ছিল ২৬তম।
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com