বুধবার, ০৯ অক্টো ২০১৯ ০৮:১০ ঘণ্টা

‘কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে’

Share Button

‘কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে’

ডেস্ক রিপোর্ট :
ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমি ছাত্ররাজনীতি করে এ পর্যন্ত এসেছি। আমি ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ কেন করব? তবে কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে। কেউ করতে চাইলে সেটি করতে পারে।’

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সম্প্রতি ভারত ও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেয়া নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বুয়েটে আবরার হত্যা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘কিছু হলেই ছাত্ররাজনীতি বন্ধের কথা ওঠে। এই যে বুয়েটে হত্যাকাণ্ড হলো। সেখানে কি কোনো রাজনীতি আছে? যারা অপরাধ করেছে তারা কে কোন দল সেটি আমি বুঝি না।’ তিনি বলেন, ‘বুয়েটের কমিটি আছে, তারা যদি মনে করে বন্ধ (ছাত্ররাজনীতি) করে দিতে পারে। এখানে আমরা কোনো হস্তক্ষেপ করব না। এই যে ছেলেটাকে (বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদ) হত্যা করল, এটা তো কোনো রাজনীতি না। বসুনিয়াকে (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র রাউফুন বসুনিয়া) যে হত্যা করেছিল সেটা রাজনৈতিকভাবে।’

ছাত্রলীগের রাজনীতি প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ছাত্রলীগ সব সময় একটা আলাদা স্বাধীন সংগঠন ছিল। কমিউনিস্ট পার্টি ছাড়া। কারণ তাদের ছাত্র সংগঠন মূল দলে সম্পৃক্ত। তবে হ্যাঁ, মূল দল ছাত্রলীগকে নির্দেশনা দেয়। ছাত্রদের নষ্ট পলিটিক্স জিয়াউর রহমান চালু করেছিলেন। আমাদের গঠনতন্ত্র দেখলে দেখবেন ছাত্রলীগ আমাদের অঙ্গ সংগঠন না। এই যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটেছে। অনেক প্রতিষ্ঠানে সংগঠন করা নিষেধ। বুয়েট যদি মনে করে তারা করতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ছাত্র রাজনীতি ব্যান সেটি তো মিলিটারি ডিকটেটরদের কথা। আমি কিন্তু ছাত্র রাজনীতি করে এখানে এসেছি। আমাদের দেশের অসুবিধা হলো মিলিটারি এসে তাদের লোভী করে গেছে। সেটি আসলে নষ্ট রাজনীতি হয়ে গেছে। সেখান থেকে আমরা ফিরিয়ে আনছি ধীরে ধীরে।’

এই সংবাদটি 1,007 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com