সোমবার, ২১ নভে ২০১৬ ০৪:১১ ঘণ্টা

মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের হুমকি ঢাবি শিক্ষার্থীদের

Share Button

মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের হুমকি ঢাবি শিক্ষার্থীদের

ডেস্ক রিপোর্ট:  মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর চলমান নির্যাতন বন্ধে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক শক্তির হস্তক্ষেপ চেয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এই নির্যাতন বন্ধ না করলে ঢাকায় মিয়ানমার দূতাবাস ঘেরাওয়ের হুমকি দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায় বিভিন্ন ইস্যুতে কথা বললেও মিয়ানমারের সংখ্যালঘুদের ওপর চালানো এই নির্যাতনের কোনো প্রতিবাদ করছে না।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। আরাকান রাজ্যে গণহত্যার প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের পাঁচ শতাধিক ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. বেগম আকতার কামাল, বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শিবলী রোবাইয়াতুল ইসলাম, প্রক্টর অধ্যাপক ড. আমজাদ আলী। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকেও সংহতি জানানো হয়। সংগঠনগুলো হচ্ছে- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার, স্লোগান ৭১, কালচারাল সোসাইটি, মাইম অ্যাকশন।

মানববন্ধনে ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক মোশাররফ হোসেন বলেন, মিয়ানমারের মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালানো হলেও আন্তর্জাতিক মহল আজ নীরব ভূমিকা পালন করছে। জাতিসংঘ কোনো পদক্ষেপ না নিয়ে উল্টো বাংলাদেশকে সীমান্ত খুলে দিতে বলছে। এটা ন্যাক্কারজনক।

এসময় শিক্ষার্থীদের পক্ষে পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন শিক্ষার্থী মোতাকাব্বির খান প্রবাস। দাবিগুলো হচ্ছে- গণহত্যা বন্ধে মিয়ানমার সরকারকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে; জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ করতে হবে; রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে; অং সান সুচির নোবেল ফিরিয়ে নিতে নোবেল কমিটির পদক্ষেপ নিতে হবে; বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে হবে।

এই সংবাদটি 1,097 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com