সিলেট হেফাজতের দাবি সমুহ

প্রকাশিত: ১:১৩ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

সিলেট হেফাজতের দাবি সমুহ

সিলেট রিপোর্ট:

সিলেটে শোডাউন দিলো হেফাজতে ইসলাম। সাবেক আমীর আল্লামা শফীর মৃত্যুর পর দল পুনর্গঠনের মাধ্যমে রাজধানী ঢাকার বাইরে প্রথমবারের মতো তারা সিলেটে বিশাল জমায়েত করলো। তাদের এই শোডাউনে গতকাল শনিবার লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠেছিলো সিলেট মহানগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠ এলাকা। সমাবেশের বিস্তৃতি কেবল মাদ্রাসা মাঠেই সীমাবদ্ধ থাকেনি, সেটি ছড়িয়ে পড়েছিল তালতলা থেকে নগরীর কোর্ট পয়েন্ট এলাকায়। এতে করে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছিলো নগরীর কোর্ট পয়েন্ট, সিটি পয়েন্ট, সুরমা মার্কেট এলাকা, বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে, তালতলা এবং কীন ব্রিজ এলাকা। বিপুল সংখ্যক লোক সমাগমের কারণে ওই সব এলাকায় যানবাহন চলাচল করতে পারেনি। ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর ব্যঙ্গ চিত্রের প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলাম সিলেট জেলা ও মহানগরের উদ্যোগে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়। মূল মঞ্চ করা হয়েছিল রেজিস্ট্রারি মাঠের ভেতরে।
সন্ধ্যার আগে সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণ দেন হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। সমাবেশে ভাষণ দানকালে তিনি বলেন, মুসলিম হিসেবে আমরা সবাই ভাই ভাই। আমাদের মধ্যে কোনো বিরোধ নেই। কিন্তু দেশ আজ দুই ভাগে বিভক্ত। এক ভাগ হচ্ছে আস্তিক ও অন্যভাগ নাস্তিক। সরকারের ভেতরেও নাস্তিকরা ঘাপটি মেরে বসে আছে। এরা হচ্ছে মূল সমস্যা। এরা শুধু হেফাজতের সমস্যা নয়, এরা সমাজ, রাষ্ট্র ও দেশের জন্য সমস্যা। তিনি বলেন, হেফাজতে ইসলাম কারো দুশমন নয়। কারো সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের প্রতিযোগিতা নেই। কোনো রাজনৈতিক দলের এজেন্ডা বাস্তবায়নের কাজ হেফাজতে ইসলামের নয়। তবে আল্লাহ ও আল্লাহর রাসুল (সা.)-এর বিরুদ্ধে যারা কথা বলবে, তাদের বিরুদ্ধে হেফাজতের অবস্থান। একমাত্র আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর এজেন্ডা বাস্তবায়নে হেফাজতে ইসলাম কাজ করবে। সুতরাং নবীর বিরুদ্ধে ফ্রান্সে যে বেয়াদবি করা হয়েছে সেটির প্রতিবাদ বাংলাদেশকে রাষ্ট্রীয়ভাবে করতে হবে। রাসুলের জন্য কোটি কোটি জনতা রক্তের সাগরে ভাসতে প্রস্তুত। সমাবেশে হেফাজতের আমীর বলেন, কাদিয়ানিরা শুধু ইসলাম নয়, দেশ ও জাতির শত্রু। এরা মুসলমান পরিচয়ে মক্কা, মদিনা চলে যায়। সুতরাং কাদিয়ানিদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। তাদেরকে কাফের ঘোষণার মাধ্যমে পবিত্র মক্কা ও মদিনা যাওয়ার পথ রুদ্ধ করতে হবে। এদিকে সিলেটের কোর্ট পয়েন্টে হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু অনুমতি না পাওয়ায় রেজিস্ট্রারি মাঠে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। হেফাজতের আমীর তার ভাষণে এ সম্পর্কে বলেন, সমাবেশের স্থান সংকীর্ণ হলে কী হবে, আল্লাহর আকাশে আমাদের জন্য অফুরন্ত জায়গা রয়েছে। সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা নুর হোসেন কাসেমী। তিনি বলেন, মহানবী (সা.)-এর সম্মান রক্ষায় আমরা নিজেদের কোরবানি দিতেও প্রস্তুত আছি। ব্যঙ্গ চিত্রের জন্য ফ্রান্সকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলবে। আমরা ফ্রান্সের এই আচরণ মানবো না, মানছি না। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।
ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে সিলেটে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। এই সমাবেশ থেকে সরকার ও প্রশাসনের উদ্দেশ্যে এসেছে তিনটি দাবি। শনিবার নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠে সমাবেশ করে হেফাজতে ইসলাম।

সমাবেশে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নবনির্বাচিত আমির, শায়খুল হাদিস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা শায়খুল হাদীস মাওলানা জিয়া উদ্দীনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব শায়খুল হাদিস আল্লামা নূর হোসাইন কাসিমী, উপদেষ্টা শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফফি রশিদুর রহমান ফারুক বর্ণভী, শায়খুল হাদিস উবায়দুল্লাহ ফারুক আকুনী, নায়েবে আমির শায়খুল হাদীস নূরুল ইসলাম খান সুনামগঞ্জী, নায়েবে আমির প্রফেসর ড. আহমদ আবদুল কাদের,সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট মাওলানা আবদুর রকীব ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন প্রমুখ।
সমাবেশে হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে তিনটি দাবি উত্থাপন করেন সংগঠনের সিলেটের অন্যতম নেতা মাওলানা ইউসুফ খাদিমানী।
দাবিগুলো হলো- মহানবী (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করতে হবে, কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয় ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে।

সিলেটের হোটেলসমূহে মদের অনুমোদন বাতিল ও মাদকের অবাধ ছডাছডি বন্ধ করতে হবে এবং বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান আহমদ হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

এই সংবাদটি 583 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com