জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা নিয়ে কর্তৃপক্ষের বিবৃতি

প্রকাশিত: ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১

জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা নিয়ে কর্তৃপক্ষের বিবৃতি

সিলেট রিপোর্ট : রাহবারে মিল্লাত আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী (র) প্রতিষ্ঠিত দেশের অন্যতম শীর্ষ দ্বীনি প্রতিষ্ঠান জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসার পরিচালনায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম মাওলানা নাজমুল হাসানকে স্বপদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। বুধবার (২৭ জানুয়ারী) বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার শিক্ষা সচিব ও কার্যনির্বাহী পরিষদের অন্যতম সদস্য মুফতি মকবুল হোসাইন কাসেমী জানান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হাফেজ মাওলানা নাজমুল হাসানের মাদ্রাসার অভ্যন্তরিণ প্রশাসনিক পরিচালনায় অন্যান সকল শিক্ষক অনাস্থা জ্ঞাপন করে গত সোমবার (২৪ জানুয়ারী) কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি বরাবরে এক আবেদনপত্র পেশ করেন। সভাপতি মহোদয় উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সিনিয়র সকল শিক্ষকের সাথে পরামর্শ করে প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা বজায় রাখা ও সুষ্ঠু পরিচালনার লক্ষ্যে ৫ সদস্যের এক পরিচালনা বোর্ড গঠন করে পরামর্শের ভিত্তিতে মাদ্রাসা পরিচালনার নির্দেশ দেন। সেই আলোকেই বর্তমানে জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসা পরিচালিত হচ্ছে।
পরিচালনা বোর্ডে যারা:
১. মুফতি মনির হোসাইন কাসেমী
২. মাওলানা মকবুল হোসাইন কাসেমী
৩. মুফতি ইকবাল হোসাইন
৪. মাওলানা হাবীবুল্লাহ মাহমুদ কাসেমী
৫. মাওলানা জাকির হোসাইন কাসেমী।
এদিকে জামিয়াকে নিয়ে দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকা’সহ কয়েকটি গণমাধ্যমে সম্প্রতি প্রচারিত বিভ্রান্তিমূলক খবরকে নির্জলা মিথ্যা ও সত্যের অপলাপ উল্লেখ করে প্রতিবাদ জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পরিষদ। এব্যাপারে মাওলানা মকবুল হোসাইন বলেন, গতকাল দৈনিক কালেরকণ্ঠ’সহ আরো দুয়েকটি ভূঁইফোড় অনলাইন পোর্টাল রাহবারে মিল্লাত আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রাহ.) প্রতিষ্ঠিত জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসাকে নিয়ে মিথ্যা ও কিছু কল্পকাহিনী প্রচার করে। মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতি জাকির হোসাইন কাসেমীকে আটক রেখে মাদ্রাসা দখল করা হয়েছে এমন নির্জলা মিথ্যা খবরও প্রচার করে। অথচ বাস্তবতা ও মজার বিষয় হচ্ছে, বর্তমান ৫ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা পরিষদে মুফতি জাকির হোসাইন কাসেমীও অন্যতম একজন সদস্য। তাছাড়া মাদ্রাসার অভ্যন্তরের স্বাভাবিক পরিবেশে কোনরূপ ব্যত্যয় হয়নি, বরং শিক্ষাকার্যক্রমসহ সবকিছু স্বাভাবিক গতিতেই চলছে। মাদ্রাসা ক্যাম্পাস উন্মুক্ত এবং যে কারোরই অবলোকন করার সুযোগ আছে। বারিধারা মাদ্রাসা পরিচালনা পরিষদ উদ্দেশ্যমূলক এই মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনার তীব্র প্রতিবাদ এবং সংশ্লিষ্ট সাংবাদটি প্রত্যাহার ও দু:খপ্রকাশের দাবি জানাচ্ছে। আমরা মনে করছি, এমন বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচার ইসলামবিদ্বেষী কোন চক্রের প্ররোচণায় মাদ্রাসার সুনামহানির অপচেষ্টা থেকে হতে পারে।
মুফতি মকবুল হোসাইন কাসেমী বলেন, গণমাধ্যমের দায়িত্ব হচ্ছে, যে কোন বিভ্রান্তির নিরসনে বাস্তবসম্মত তথ্য জনগণের সামনে তুলে ধরা। কিন্তু এর বিপরীতে গিয়ে কোন গণমাধ্যম যখন সাংশ্লিষ্টদের কোনরূপ মতামত গ্রহণ ছাড়াই অসৎ উদ্দেশ্যে টেবিল প্রতিবেদন করে কল্পকাহিনী ছড়ায়, তখন বাস্তবিকই হতাশ হতে হয়। তিনি বলেন, গণমাধ্যমের প্রতি আমরা সবসময় শ্রদ্ধাশীল। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রচারে সংবাদকর্মীদের সাথে আমরা সার্বক্ষণিক সহযোগিতামূলক মনোভাব রাখি এবং দায়িত্বশীলতা আশা করি।
এদিকে,আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রহ.)এর ছেলে মুফতি জাবের কাসেমিকে জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার মুহাদ্দীস হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে। রোববার ২৪ জানুয়ারি জামিয়ার শাইখুল হাদীস আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক এর সভাপতিত্বে মজলিসে ইলমীর সিদ্ধান্তে মুহাদ্দিস হিসেবে এ নিয়োগ দেয়া হয়।

এই সংবাদটি 1900 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com