ড.মুশতাকের নেতৃত্তাধীন তাহাফ্ফুজে মাদারিসে কাওমিয়ার সাথে সিলেটের আজাদ দ্বীনি এদারার একাত্মতা ঘোষণা

প্রকাশিত: ১২:১০ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৫, ২০২১

ড.মুশতাকের নেতৃত্তাধীন তাহাফ্ফুজে মাদারিসে কাওমিয়ার সাথে সিলেটের আজাদ দ্বীনি এদারার একাত্মতা ঘোষণা

সিলেট রিপোর্ট :
ড. মাওলানা মুশতাক আহমদের নেতৃত্তাধীন তাহাফ্ফুজে মাদারিসে কাওমিয়া বাংলাদেশের সাথে কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড আজাদ দ্বীনি এদারায়ে তালিম বাংলাদেশের সভাপতির একাত্মতা ঘোষণা। শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দে তেজগাঁও রেলওয়ে জামেয়া ইসলামিয়ায় শায়খুল হাদিস ড. মুশতাক আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত তাহাফ্ফুজে মাদারিসে কাওমিয়া বাংলাদেশের মতবিনিময় সভায় কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড আজাদ দ্বীনি এদারায়ে তালিম বাংলাদেশের সভাপতি ও জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরার মুহতামিম মাওলানা জিয়া উদ্দিন দুজন প্রতিনিধি সহ এক চিঠি প্রেরণ করে একাত্মতা প্রকাশ করেন। তিনি তাঁর চিঠিতে বলেন, ‘দেশ-জাতি, উলামায়ে কেরাম ও কওমি মাদরাসাসমূহের এ ক্রান্তিকালে কওমি শিক্ষা সংরক্ষণ ও উন্নয়ন কমিটি কর্তৃক আহুত আজকের বৈঠকে উপস্থিত হযরাত উলামায়ে কেরাম!
আমি আজকের বৈঠকে উপস্থিত হওয়ার একান্ত ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও একদিকে রমজান অপরদিকে শারীরিক নানান অসুস্থতার কারনে আপনাদের সামনে হাজির হতে না পারার মর্মজ্বালা অনুভব করছি। বর্তমান এ সংকটময় মুহুর্তে যারা এ উদ্যােগ গ্রহণ করেছেন আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।’
চিঠি নিয়ে যারা উপস্থিত হয়েছিলেন; সিলেট ফরিদাবাদ মাদরাসার মুহতামীম মাওলানা ফখরুজ্জামান এবং দারুল হুদা মাদরাসার মুহতামীম মাওলানা মুজিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে মাওলানা জিয়া উদ্দিনের চিঠি পাঠ করেন মাওলানা ফখরুজ্জামান।

পঠিত চিঠি নিন্মরুপ:
#তাহাফফুযে_মাদারিসে_কওমিয়া_এর_আজকের_সম্মেলনে_শায়খ_জিয়া_কর্তৃক_প্রেরিত_বার্তা
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ
দেশ-জাতি, উলামায়ে কেরাম ও কওমি মাদরাসাসমূহের এ ক্রান্তিকালে কওমি
শিক্ষা সংরক্ষণ ও উন্নয়ন কমিটি কর্তৃক আহুত আজকের বৈঠকে উপস্থিত হযরাত উলামায়ে কেরাম!
আমি আজকের বৈঠকে উপস্থিত হওয়ার একান্ত ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও একদিকে রমজান অপরদিকে শারীরিক নানান অসুস্থতার কারনে আপনাদের সামনে হাজির হতে না পারার মর্মজ্বালা অনুভব করছি। বর্তমান এ সংকটময় মুহুর্তে যারা এ উদ্যােগ গ্রহণ করেছেন আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।
আমি আজকের বৈঠকের মাধ্যমে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি যে,
১. অতীতের ন্যায় এবারও কওমি মাদরাসাসমূহ খোলে দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হোক। যাতে হেফজখানা ও মক্তবের নিষ্পাপ বাচ্চাদের কুরআন পাঠের মাধ্যমে আল্লাহ পাক দেশ ও জাতিকে করোনা মহামারির ব্যাপকতা থেকে রক্ষা করে।
২. মাদারিসে কওমিয়া ও তৎসংশ্লিষ্ট আলেম-উলামা ও সাধারণ জনগণকে অহেতুক হয়রানি করা বন্ধ করা হোক। পবিত্র মাহে রামাজানে সকলকে নিশ্চিন্তে ইবাদত -বন্দেগী করার সুযোগ দেওয়া হোক।
৩. কওমি মাদরাসাসমূহকে আকাবিরের আদর্শ ও ঐতিহ্যের উপর প্রতিষ্ঠিত থাকতে দেওয়া হোক। দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতির আলোকে যেভাবে স্বীকৃতী প্রদান করা হয়েছে তা যেন সর্বদা বহাল থাকে। কোন ভাবেই যেন কওমি মাদরাসাসমূহকে সরকারী নিয়ন্ত্রনে নেওয়ার চেষ্টা করা না হয়।
ইদানিং সরকারী দলের কেউ কেউ কওমি মাদরাসাসমূহকে সরকারী নিয়ন্ত্রনে নেওয়ার, কওমি মাদরাসার বোর্ডসমূহে সরকার কর্তৃক লোক নিয়োগ ও সরকারীভাবে সিলেবাস প্রণয়নের যে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে তা সরকারের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে বলে মনে করিনা। তাই সরকারকে এ পথে পা না বাড়ানোর পরামর্শ দিচ্ছি।
মহান আল্লাহ পাকের দরবারে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ সবাইকে নিরাপদ রাখুন সুস্থ রাখুন। আমীন।
মাআসসালাম।
জিয়া উদ্দীন
মুহতামিম
জমেয়া মাদানিয়া আংগুরা মুহাম্মদপুর, সিলেট।

এই সংবাদটি 925 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com