একজন নিভৃতচারী হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান রহ.

প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, মে ২৬, ২০২১

একজন নিভৃতচারী হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান রহ.

 

অধ্যক্ষ ড. সৈয়দ রেজওয়ান আহমদ:

একজন নিভৃতচারী ও নিষ্ঠাবান আলেম এবং জ্ঞানানুরাগী ও আদর্শ মানুষ গড়ার কারিগর। মহান এ আলেমের জীবনের সিংহভাগ কেটেছে শিক্ষকতায়। বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ইসলামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জামেয়া মাদানিয়া কাজির বাজার সিলেট এ দীর্ঘ তিন দশকের বেশি সময় তিনি অধ্যাপনা করেছেন। এ সময়ে বহু দেশবরেণ্য আলেম, গবেষক, শিক্ষক ও চিন্তাবিদ গড়ে তুলেছেন। ইসলামী জ্ঞান-জগতের নানা শাখা-প্রশাখায় তাঁর ছিল অবাধ বিচরণ। কুরআন-হাদিস, ফিকাহ, আরবি, ইতিহাস ও আধ্যাত্মিকতাসহ নানা বিষয়ে অত্যন্ত সহজবোধ্য আলোচনা করতেন তিনি। অপরিসীম স্নেহ ও আন্তরিকতা দিয়ে শিক্ষার্থীদের তিনি জ্ঞান জগতের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতেন। শিশু-কিশোর, তরুণ-যুবক সব বয়সী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে হাসিমাখা বদনে ও আনন্দচিত্তে পাঠদানে ছিলেন সিদ্ধহস্ত। আদর-সোহাগ ও স্নেহমাখা অনুশাসন আপন করে নিতেন সবাইকে। জ্ঞান জগতে এ মহান বিদগ্ধ আলেম ও হাফিজে কুরআন বিগত ২৬মে ২০১১খ্রি. মহান রবের সান্নিধ্যে পাড়ি জমান।

হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান রহ. ১৯৫৪খ্রি. সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ী ইউনিয়নের ঘনশ্যাম গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা মাওলানা মাহমুদ আলী রহ. সিলেটের হাওয়াপাড়া জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব এবং জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের নেতা ছিলেন। তার মাতার নাম আছিয়া খাতুন যিনি ছিলেন একজন দ্বীনদার ও পরহেজগার।

মেধা, যোগ্যতা, সুস্থ বোধশক্তি আর দ্বীনের স্বভাবজাত প্রেরণা পরিবার থেকেই তিনি অর্জন করেছেন। ফুলবাড়ী ইউনিয়নের বইটিকর প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে তাঁর প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা শুরু। পরবর্তীতে ফুলবাড়ী আলিয়া মাদ্রাসায় ভর্তি হয়ে আলিম পর্যন্ত লেখাপড়া করে জামেয়া ক্বাসিমুল উলুম দরগাহে হযরত শাহজালাল রহ. সিলেট এ হিফজ বিভাগে ভর্তি হন এবং স্বল্প দিনেই কুরআন হিফজ শেষ করেন। পরবর্তীতে সিলেট সরকারী আলিয়া মাদরাসায় ফাজিল শ্রেণীতে ভর্তি হন এবং ১৯৭৪খ্রি. সিলেট সরকারী আলিয়া মাদরাসা থেকে প্রথম বিভাগে কামিল পাশ করে শিক্ষা সমাপন করেন। শিক্ষাজীবন শেষে তিনি দ্বীনি শিক্ষার ব্যাপক প্রচার-প্রসারের লক্ষ্যে শিক্ষকতার মহান পেশায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করেন। শিক্ষকতা জীবনে ক্রমশ তাঁর যোগ্যতা ও জ্ঞানের গভীরতার সুনাম সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-ছাত্র, অভিভাবক সবার কাছেই তিনি অত্যন্ত প্রিয় শিক্ষক হিসেবে ছিলেন।

তিনি ছিলেন ধর্মদ্রোহী, দেশবিরোধী শক্তির বিরুদ্ধে রাজপথের সিংহ পুরুষ, বাতিলের আতংক আলেম সমাজের ভরষাস্থল প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান রহ. এর আপন ছোট ভাই। প্রিন্সিপাল রহ. এর হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান জামেয়া মাদানিয়া কাজির বাজার সিলেট এ অধ্যাপনার মধ্য দিয়ে তাঁর বর্ণাঢ্য কর্মজীবনের সূচনা হয়। এ মাদরাসায়ই তার শিক্ষকতা জীবনের শুরু এবং শেষ; যদিও মধ্যখানে কিছুদিন মক্কা মদীনায় কাটিয়েছেন। দীর্ঘ তিন দশকের অধ্যাপনাকালে তিনি মাদরাসার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সুচারুরূপে পালন করেছেন।
তিনি শায়খুল আরব ওয়াল আযম সাইয়্যিদ হুসাইন আহমদ মাদানী রহ. এর সুযোগ্য সাহেবজাদা ফেদায়ে মিল্লাত আল্লামা সাইয়্যিদ আসআদ আল মাদানী রহ. এর খলীফা ছিলেন।

তিনি ছিলেন সবার কাছে অত্যন্ত প্রিয় ব্যক্তিত্ব। গভীর জ্ঞানের অধিকারী এ মহান শিক্ষক ব্যক্তিজীবনে ছিলেন একদম অকৃত্রিম ও নিষ্কলুষ জীবনের অধিকারী, আচার- ব্যবহারে সততা ও ভদ্রতায় ভাস্বর ছিলেন তিনি। তিনি অত্যন্ত শান্ত ও স্থির প্রকৃতির ছিলেন।ব্যক্তিত্বের দিক থেকে ছিলেন গাম্ভীর্যপূর্ণ অথচ সারল্যভরা সহজ মানুষ।

রাব্বে কারীম মরহুমকে জান্নাতে সুউচ্চ মর্যাদা দান করুন। আমিন!

এই সংবাদটি 214 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com