সৌদি আরব সহ মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশী তরুণ আলেমদের আগমন নিয়ে কিছু পরামর্শ।

প্রকাশিত: ৬:০৮ অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০২১

সৌদি আরব সহ মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশী তরুণ আলেমদের আগমন নিয়ে কিছু পরামর্শ।

রেজওয়ান  আহমদ:

সৌদি আরব সহ মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশী তরুণ আলেমদের আগমন নিয়ে কিছু পরামর্শ।

বাংলাদেশে ইসালাম ও আরবি শিক্ষা তথা কোরআন-হাদিস ফিকহ-তাফসীর সহ ইমলামী যাবতীয় জ্ঞানের সর্বোচ্চ কেন্দ্র কওমি মাদরাসা।

কওমি মাদরাসার নতুন ও তরুন মেধাবী আলেমরা প্রায় ১৬ বছর পাড়ালেখা করে অনেকই আরব আমিরাতে রুজির জন্য আসতেছেন!
প্রবাসে এসে যেই সেই। কাজ করতে হচ্ছে লেভার হিসেবে। প্রবাসে কাজের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা বা আলেম! এসবের কোনো লেভেল নাই।
কাজ তো কাজেই। সবাই সমান।

যেকোনো চাকরিতে সম্মানজনক পদের মধ্যে এই দুটি পদ বেশী সম্মানের এবং বেতনও ভালো।
১. পরিচালক (Manager -مدير)
২. হিসাবরক্ষক : (Accountant -محاسب)

মধ্যপ্রাচ্যে এসব পদে আরবি যোগ্যতার পাশাপাশি ইলমও আমানতদারীর মূল্যায়ন বেশি।
একজন নামাজি সৎ জিম্মাদারকে ম্যানেজার বা হিসাবরক্ষক নিয়োগ দিতে সব কোম্পানিই আগ্রহী।
আমি মনেকরি বাংলাদেশের কওমি আলমেরা এসব পদের জন্য পারফেক্ট। আলহামদুলিল্লাহ, আমি ৪ বছর যাবত মক্কায় একটি কোম্পানি পরিচালনা করতেছি।

যারা আরব আমিরাতে আসতে আগ্রহী
তাদের জন্য কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের উদ্যোগে যদি ৩ বা ৬ মাস মেয়াদী বিশেষ কোর্স করানো হয়।
যেখানে আরবি স্পিকিং,
অফিসিয়াল কাজের ট্রেনিং,
আরবীতে হিসাব বিজ্ঞান ও এক্সেলের প্রশিক্ষণ সহ বেসিক ট্রেনিং দেয়া হবে।

এ-ই সামান্য কিছুদিন প্রশিক্ষণ নিয়ে কওমি মাদরাসায় পড়ুয়া যেকোনো আলেম মধ্যপ্রাচ্যে আসলে,
ইনশাআল্লাহ, আল্লাহপাক সম্মানের সহিত হালাল রুজির ব্যবস্থা করে দেবেন।

আরো ভালো হবে, যদি সরকারিভাবে কওমি আলেম ও স্কুল কলেজ পড়ুয়াদের প্রশিক্ষিতকরে আরব আমিরাতে পাঠানোর উদ্যোগ নেয়া হয়।
তাহলে মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশেরও সুনাম হবে।

এসব পদের ভিসার জন্য টাকাও লাগেনা। কোম্পানি নিজ খরছে ভিসা দেবে টিকেট দেবে বেতন নূনতম ৬০ থকে ১ লক্ষটাকা পাবে।

বর্তমানে আরব আমিরাতে বাংলাদেশীরা ঘাম ঝরিয়ে কাজ করে ইনসাফপূর্ণ বেতন পাচ্ছেনা। মিশরী, ইয়ামী,সুদানী, ইন্ডিয়ান, পাকিস্তানি সহ- অন্যান্য দেশের লোকজনের বেতন বাংলাদেশী শ্রমিকদের চেয়ে অনেক অনেক বেশী।

আরবরা সহ অন্যান্য প্রবাসিরা মনে করে
বাংলাদেশীরা প্রবাসে বলদিয়া( ডাস্টবিনের কাজ) বা লেভার পদে কাজের লোক। আমি একজন প্রবাসী বাংলাদেশী হিসেবে এটাকে লজ্জাজনক মনে করি।

বাংলাদেশের রেমিটেন্সের বড় একটা অংশ যায় মধ্যপ্রাচ্য থেকে।
কাজের পাশাপাশি আমরা সম্মানটাও চাই।

রেজওয়ান আহমেদ Accountant:
مصنع عبدالهدادي للصناعات البلاستيكية-مكة المكرمة

এই সংবাদটি 242 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com