‘ডক্টরেট’ ডিগ্রি পেলেন জমিয়ত নেতা প্রিন্সিপাল মাওলানা শোয়াইব আহমদ: বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০২১

‘ডক্টরেট’ ডিগ্রি পেলেন জমিয়ত নেতা প্রিন্সিপাল মাওলানা শোয়াইব আহমদ: বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন
সিলেট রিপোর্ট : মিশরের অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘মানসুরা ইউনিভার্সিটি’ কর্তৃক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করা হয়েছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব ও ইউকে জমিয়তের সভাপতি প্রিন্সিপাল মাওলানা শোয়াইব আহমদকে।
জানাগেছে,মিশরের দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ মানসুরা ইউনিভার্সিটি কর্তৃক প্রতি বছর বিশ্বের তিনজন বিশিষ্ট ইসলামী ব্যক্তিত্বকে সম্মানসূচক অনারারি ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করা হয়।
আনুষ্ঠানিকভাবে সনদগ্রহণের জন্য ১২ অক্টোবর মাওলানা শোয়াইব আহমদ মানসুরা ইউনিভার্সিটির আমন্ত্রণে লন্ডন থেকে এক সপ্তাহের জন্য মিসর যান।
শনিবার মিশর সময় সন্ধ্যা ৭টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ড. আশরাফ আব্দুল বাসিতের হাত থেকে অনারারি ডক্টরেট ডিগ্রির সনদপত্র গ্রহণ করেন। সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন- ভার্সিটির রেজিস্ট্রার ড. জামাল ফারুক, আল আযহার ইউনিভার্সিটির শরিয়া বিভাগের ডিন ড. সাইয়্যেদ মাগরিবি, মানসুরা ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের ডিন ড. তামের ইবরাহিম এবং মিশরিয় সেনাবাহীনির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জেনারেল ড. খালেদ মাজিরী প্রমুখ।এছাড়া ডিগ্রী প্রদান অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাসোসিয়েশন অফ সায়েন্টিস্টস অ্যান্ড সায়েন্টিফিক প্রফেশনস-এর উদ্যোগে ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টি এবং বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের কাছ থেকেও প্রশংসাসূচক সনদ অর্জন করেন। এ সময় মিশরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ছাত্র এবং প্রবাসী বেশ কয়েকজন বাংলাদেশীও উপস্থিত ছিলেন। তাদের প্রতিও আন্তরিক শোকরিয়া ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছেন।
তিনি তার সকল সহকর্মী, শুভাকাঙ্খি এবং দেশবাসীর কাছে বিশেষভাবে দোয়া চেয়েছেন, নীতি-আদর্শের উপর অবিচল থেকে দ্বীনি শিক্ষার বিস্তার, দাওয়াহ কার্যক্রম এবং আর্তমানবতার সেবায় জীবনের শেষ নি:শ্বাস পর্যন্ত প্রতিটি মুহূর্ত যাতে কাজে লাগাতে পারেন।
উল্লেখ্য যে, মাওলানা শোয়াইব আহমদের গ্রামের বাড়ী সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলায়। ১৯৬৩ সালে তিনি করিমপুর গ্রামে জন্মগ্রহ করেন। তার পিতার নাম আলহাজ্ব রহমত মিয়া। ৫ বোন ও ১ ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার বড়। স্থানীয় ঘাটিয়াপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক শিক্ষার পরে তারাপাশা কওমি মাদরাসায় মাধ্যমিক শিক্ষা অর্জন করেন। এর পরে রাখালগঞ্জ আলিয়া মাদরাসায় কিছু দিন লেখাপড়া করে উচ্চশিক্ষার্থে ১৯৮৫ সালে চলে যান সৌদিআরব। সেখানে মক্কার উমৃমুল কোরা মাদরাসায় ভর্তি হয়ে ৪ বছর লেখাপড়া করেন। ১৯৯২ সালে তিনি ইংল্যান্ড গমন করেন। তিনি মারকাজুল উলুম লন্ডনের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল। তিনি জমিয়ত ছাড়া আরো বহু সংগঠন সংস্থার সাথে সম্পৃক্ত আছেন। ১৯৮৯ সালে তিনি পরিণয়সূত্রে আবদ্ধ হন। বর্তমানে ১ ছেলে ও ২ কন্যাসন্তানের জনক।
এদিকে প্রিন্সপাল মাওলানা শোয়াইব আহমদ ‘ডক্টরেট’ ডিগ্রি পাওয়ায় বিভিন্ন সংগঠন,সংস্থার পক্ষ থেকে

অভিনন্দন

জানানো হয়েছে। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউকের সেক্রেটারি সৈয়দ তামিম আহমদ, যুব জমিয়ত বাংলাদেশের সভাপতি তাফহিমুল হক,সেক্রেটারি ইসহাক কামাল,সহসাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমীন নগরী প্রমুখ এক বিবৃতিতে

অভিনন্দন জানান।

এই সংবাদটি 71 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com