প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর স্থগিত

প্রকাশিত: ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৬

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর স্থগিত

ডেস্ক রিপোর্ট:
ভারত সফর স্থগিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিবেশী দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে আগামী ১৮ ডিসেম্বর এই সফরে যাওয়ার পরিকল্পনা হয়েছিল। কিন্তু সফরের দুই সপ্তাহেরও কম সময় আগেই তা স্থগিত বয়েছে বলে ঢাকাটাইমসকে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা।

তবে কী কারণে এই সফর স্থগিত হয়েছে, তা নিশ্চিত করতে পারেননি ওই কর্মকর্তা। তিনি বলেন, ‘এখনও এ বিষয়ে জানি না, তবে পরে জানলে বিস্তারিত বলতে পারবো।’

এই সফর বাতিলের কারণ হিসেবে দুটি কারণের কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দুইজন কর্মকর্তা। একজন জানান, এই সফরে তিস্তা চুক্তি না হওয়ার সম্ভাবনাই কারণে প্রধানমন্ত্রী এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে অন্য একজন কর্মকর্তা বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চলতি মাসে চীন সফরে যাচ্ছেন। এ কারণে দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বৈঠকের সময়সূচি নির্ধারণ করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

তবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো বিবৃতি দেয়া হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। আপনি পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করতে পারেন। তবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কোনো পর্যায় থেকেই এ বিষয়ে কথা বলার মতো কাউকে রাজি করানো যায়নি।’

পানি সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের হাঙ্গেরি সফরে যাওয়ার পরই প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে যাওয়ার প্রসঙ্গ আসে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এরই মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে দুই দেশের মধ্যে অমীমাংসিত সমস্যা সমাধানে নতুন দিক উন্মোচন করবে।

গত শনিবার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনে তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা নিয়ে প্রশ্ন করা হয় শেখ হাসিনাকে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এ বিষয়ে প্রস্তুত। এখন বিষয়টি ভারতের ওপর নির্ভর করছে।

২০১১ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর ঢাকা সফরেই তিস্তা চুক্তি হওয়ার কথা ছিল। তবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির আপত্তিতে শেষ মুহূর্তে আটকে যায় এই চুক্তি। মমতা যে কারণে চুক্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিলেন এখনও সেই অবস্থানেই অটল তিনি।

জানতে চাইলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘তিস্তা চুক্তি ভারতের সঙ্গে আলোচনা চলছে। এ নিয়ে অবশ্যই অগ্রগতি হবে এবং আগামী জানুয়ারি বা ফেব্রুয়ারিতে এই সফর হতে পারে।’

এই সংবাদটি 202 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com