ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ পৃথিবীর সেরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০২১

ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ পৃথিবীর সেরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটতে পারে উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দুই বছর পর নির্বাচন। এই নির্বাচন সামনে রেখে দেশকে অস্থিতিশীল করতে একটি গোষ্ঠী সাম্প্রদায়িক হামলার মতো অপতৎপরতা চালাচ্ছে। তবে সরকার এসব তৎপরতা মোকাবিলায় কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সাম্প্রদায়িক হামলার ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের পদক্ষেপকে অত্যন্ত উত্তম বলে জানিয়েছে ভারত। ভারতের অনেক স্থানে বাংলাদেশের ঘটনার প্রতিবাদ করলেও তাদের অনেকেই বানোয়াট প্রচারণা করেছে। তবে ভারত সরকার প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে।

ইমজা কার্যালয় পরিদর্শনকালে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, ইমজা সিলেটের সভাপতি বাপ্পা ঘোষ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

টিকা উৎপাদনে যেতে প্রস্তুত বাংলাদেশ
সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘বাংলাদেশে করোনা টিকার কোনো অভাব নেই। বাংলাদেশও টিকা উৎপাদনে যেতে প্রস্তুত। টিকা কার্যক্রমে বিশ্বে আমরা এগিয়ে রয়েছি। আমরা টিকার জন্য কোনো টাকাপয়সা নিচ্ছি না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে টিকা কার্যক্রম সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশের বড় অর্জন। হাতে গোনা কয়েকটি দেশ বিনা মূল্যে টিকা দিচ্ছে।’

দুপুরে নগরীর বারুতখানায় সিলমার্ট কমপ্লেক্সে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘করোনাকালে কূটনৈতিক তৎপরতায় সফল’ হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জেলা প্রেসক্লাবের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সিলেট জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আল আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ। অনুষ্ঠানে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন।

জেলা প্রেসক্লাবের সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘করোনাকালে কূটনৈতিক সফলতা আমার একার নয়। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সব দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। তাঁর দূরদর্শিতা, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, কোভিড-১৯ ম্যানেজমেন্ট কমিটিসহ সংশ্লিষ্ট সবার অবদানেই আমরা করোনাকালের কূটনীতিতে সফল হয়েছি বলতে হবে। বিশ্বের বহু শক্তিশালী দেশে মৃত্যুর সংখ্যার তুলনায় আমাদের দেশে একেবারেই কম।’

এই সংবাদটি 35 বার পঠিত হয়েছে

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com