নেত্রকোণায় জমিয়তের সভায় শায়খুল হাদীস খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী:

প্রকাশিত: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০২১

নেত্রকোণায় জমিয়তের সভায় শায়খুল হাদীস খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী:

সিলেট রিপোর্ট

: আগামী ২৫ ডিসেম্বর জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল আজ (২৯ নভেম্বর) নেত্রকোণা জেলায় সাংগঠনিক সফর করেন। কেন্দ্রীয় জমিয়তের সহসভাপতি (সদ্যকারামুক্ত) শায়খুল হাদীস মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী (হাফিজাহুল্লাহ) এর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে ছিলেন কেন্দ্রীয় জমিয়তের যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহ জামী,অন্যতম সহসাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী শায়খ মাহবুবুল্লাহ কাসেমী, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা আব্দুল্লাহ হিল বাকি। এ উপলক্ষে বিকেলে
শহরতলীর শালজান (মাহমুদিয়া মাদরাসায়) জেলা জমিয়তের সভাপতি মুফতি তাহের কাসেমীর সভাপতিত্বে এবং যুব নেতা মাওলানা মুহাম্মদ রুহুল আমীন নগরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সাংগঠনিক বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা জমিয়তের
সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মফিজুর রহমান, জমিয়ত নেতা মাওলানা আবুল খায়ের, মাওলানা তরিকুল ইসলাম, মাওলানা বুরহান উদ্দীন প্রমুখ।
কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের আলোচনার পরে জেলার সাংগঠনিক কার্যক্রম নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। সর্বসম্মতিক্রমে জেলা কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় দ্রুত কাউন্সিলের জন্য ৫ সদস্যের বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়। কাউন্সিল বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যগণ হলেন: মুফতি তাহের কাসেমী, মাওলানা মফিজুর রহমান, আবুল বাশার ফরাজী, মাওলানা রুহুল আমীন নগরী, মাওলানা ইলিয়াস আহমদ।
কেন্দ্রীয় সার্কুলার অনুযায়ী প্রতি জেলা থেকে ৫ জন এবং উপজেলা থেকে ২ জন করে কাউন্সিলর জাতীয় সম্মেলনে অংশ নিতে পারবেন।
শায়খুল হাদীস মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ সাদী সাহেব
শায়খুল হিন্দ মাহমুদ হাসান ও শায়খুল ইসলাম হোসাইন আহমদ মাদানী (র) এর মাল্টার বন্দি জীবনের
ইতিহাস বর্ণনা করে বৃহত্তর ময়মনসিংহে জমিয়তের কার্যক্রমকে জোরদার করার আহবান জানান। তিনি মাওলানা মুহিউদ্দীন খান, স্বীয় পিতা মাওলানা আরিফ রব্বানী, মাওলানা দৌলত আলী (র) এর ১৯৭০ সালে জমিয়তের প্রতীক খেজুরগাছ নিয়ে নির্বাচন করার ইতিহাস তুলে ধরে বলেন এই জনপদে সাড়ে ৭ শ কওমী মাদরাসা রয়েছে। এর পেছনে আমাদের আকাবিরদের ত্যাগ সাধনা রয়েছে। নেত্রকোণায় জমিয়ত নেতা জাতীয় পরিষদের সদস্য মাওলানা মনজুরুল হক, মাওলানা বুরহান উদ্দীন (র), সহ আরো অনেক পুর্বসুরীদের এই ময়মনসিংহ বিভাগে জমিয়তের কাজকে বেগবান করতে হবে।
তিনি বলেন আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। এজন্য জেল যুলুম সহ সকল প্রকার ত্যাগী মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে। শুধু মুখে আকাবিরদের কিচ্ছা কাহিনী বল্লে হবেনা, দ্বীনের জন্য সর্বাত্মক ত্যাগ স্বীকারের জন্য নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হবে।

এই সংবাদটি 141 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com