বিবাহিত ছাত্রীদের হল ছাড়ার নির্দেশনা স্থগিত

প্রকাশিত: ১০:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০২১

বিবাহিত ছাত্রীদের হল ছাড়ার নির্দেশনা স্থগিত

ডেস্ক রিপোর্ট : মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আলেমা খাতুন ভাসানী ছাত্রীনিবাসে বিবাহিত ছাত্রীদের হল ছাড়ার নির্দেশনা স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ। সোমবার (২০ ডিসেম্বর) আলেমা খাতুন ভাসানী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক রোকসানা হক রিমি স্বাক্ষরিত একটি নোটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর ২০২২ সালের ৩০ জানুয়ারির মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়ে একটি নোটিশ দেয় কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে বিবাহিত ছাত্রীদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। আলোচনা-সমালোচনা সৃষ্টি হয়  জেলাজুড়ে।

হল ছাড়ার নোটিশে বলা হয়, হলের নিয়ম অনুযায়ী বিবাহিত ছাত্রীদের হলে থেকে অধ্যয়নের সুযোগ নেই। এ অবস্থায় আগামী ৩০ জানুয়ারির মধ্যে আলেমা খাতুন ভাসানী হলের সিট ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হলো। উল্লেখ্য, কোনও ছাত্রী বিবাহিত হলে দ্রুত হল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। তা না হলে নিয়ম ভঙ্গের কারণে জরিমানাসহ সিট বাতিল করা হবে।

সোমবার ওই নির্দেশনা স্থগিতের নোটিশে বলা হয়েছে, গত ১১ ডিসেম্বর দেওয়া বিবাহিত ছাত্রীদের সিট বাতিল সংক্রান্ত নোটিশের কার্যকারিতা স্থগিত করা হলো।

জানা যায়, ২০০৫ সাল থেকেই এই নিয়ম চালু রয়েছে। ছাত্রীদের অঙ্গীকারনামায়ও বিবাহিত ছাত্রীরা হলে থাকতে পারবে না বলে উল্লেখ রয়েছে। বর্তমানে সিটের তুলনায় বেশি শিক্ষার্থী আবেদন করায় বিবাহিতদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। অধ্যয়নরত থাকা অবস্থায় ছাত্রীদের বিয়ে হওয়ায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

হল ছাড়ার নোটিশের পর বিবাহিতদেরও হলে থাকার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানান ছাত্রীরা। বিষয়টি নিয়ে চলছিল আলোচনা-সমালোচনা। এ নিয়ে বিভিন্ন অনলাইনসহ দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

আলেমা খাতুন ভাসানী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক রোকসানা হক রিমি বলেন, ‘বিবাহিত ছাত্রীদের হল ছাড়ার নির্দেশনাটির কার্যকারিতা স্থগিত করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত নোটিশ হলে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।’ এ বিষয়ে তিনি বিস্তারিত কিছু বলেননি।

এর আগে প্রভোস্ট বলেছিলেন, ‘যখন প্রথম নীতিমালা করা হয় তখন অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়কে অনুসরণ করেই এই নিয়মটি করা হয়েছে। বিবাহিত ছাত্রীদের হলে থেকে অধ্যয়নের সুযোগ নেই। যদি কেউ বিয়ে করে তাহলে কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে। পরে তার সিট বাতিল হবে। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, হলে বিবাহিত ছাত্রী রয়েছে। তারা নিয়মিত হলে থাকছে না। সিট নেওয়ার মতো প্রার্থী অনেক বেশি রয়েছে, কিন্তু সিট অত্যন্ত কম। যেহেতু নিয়ম রয়েছে, বিবাহিত ছাত্রীরা হলে থাকতে পারবে না, এজন্য তাদের হল ছাড়ার নোটিশ দেওয়া হয়েছে।’

এই সংবাদটি 106 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com