রাতে জ্বলন্ত লঞ্চ থেকে বাঁচাতে প্রায় ৩০০ যাত্রীকে বিনা ভাড়ায় পারাপার করেছেন মিলন

প্রকাশিত: ৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৯, ২০২১

রাতে জ্বলন্ত লঞ্চ থেকে বাঁচাতে প্রায় ৩০০ যাত্রীকে বিনা ভাড়ায় পারাপার করেছেন মিলন

ডেস্ক রিপোর্ট :
ঝালকাঠিতে গত বৃহস্পতিবার রাতে জ্বলন্ত লঞ্চ থেকে প্রাণ বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপ দেওয়া প্রায় ৩০০ যাত্রীকে বিনা ভাড়ায় পারাপার করেছেন মিলন খান (৩৫) নামের এক ট্রলারচালক। তিনি বিপদগ্রস্ত যাত্রীদের তীরে পৌঁছে দিয়েছেন। কাউকে কাউকে তিনি হাসপাতালের পথ পর্যন্ত এগিয়ে দিয়েছেন। মিলন লঞ্চঘাট বেড়িবাঁধ এলাকার মৃত সরুব আলীর ছেলে। স্ত্রী ও তিন সন্তান নিয়ে পাঁচজনের সংসার তাঁর। ট্রলার চালিয়েই সংসার চালান তিনি। প্রতিদিন তিনি ১০ টাকার বিনিময়ে সদরের দিয়াকুল থেকে শহরের লঞ্চঘাটে যাত্রী পারাপার করেন। তবে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার দিন তিনি কারও কাছ থেকে কোনো টাকা নেননি। ট্রলারচালক মিলন খান বলেন, রাত তিনটার দিকে দিয়াকুল গ্রামের সুগন্ধা নদীতে যাত্রীদের চিৎকার ও আগুন দেখে ট্রলার নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি আগুন থেকে বাঁচতে যাত্রীরা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে ভেসে আছেন। পরে তাঁদের উদ্ধার করে পাড়ে নিয়ে যাই। তাঁদের অনেকেই দগ্ধ ছিলেন। হাত-পা ভাঙা ছিল। দ্রুত তাঁদের হাসপাতালে পাঠিয়ে চিকিৎসা করানোর প্রয়োজন ছিল। দিয়াকুল গ্রামের মানুষের সহায়তায় রাত থেকে সকাল পর্যন্ত অন্তত ৩০০ যাত্রী পারাপার করে তীরে ও হাসপাতালে পাঠাতে সহায়তা করেছি। আমি কারও কাছ থেকে কোনো ভাড়া নিইনি। টাকাই সব নয়। বিপদে মানুষকে সহায়তা করেছি, এটাও কম নয়। ঢাকা থেকে বরগুনাগামী অভিযান-১০ লঞ্চটি বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে থাকার সময় আগুন ধরে যায়। এতে এখন পর্যন্ত ৩৮ জন নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ আছেন ৫১ জন।

এই সংবাদটি 185 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com