মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিন অর্ধশতাধিক কাল ধরে নিভৃত পল্লিতে জ্ঞানের প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করেছেন

প্রকাশিত: ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ, মে ২২, ২০২২

মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিন অর্ধশতাধিক কাল ধরে নিভৃত পল্লিতে জ্ঞানের প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করেছেন

সিলেট রিপোর্ট : জামেয়া কাসিমুল উলুম দরগাহ মাদরাসার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস মাওলানা মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী বলেছেন, মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিন অর্ধশতাধিক কাল ধরে নীরবে জ্ঞানের প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করেছেন। মানুষ গড়ার কারিগর ও শত শত আলেমের এই শিক্ষক নিভৃত পল্লিতে যেভাবে দ্বীনি শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিয়েছেন, যুগ যুগ ধরে সেই আলো এই অঞ্চলকে আলোকিত করবে, প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে তাঁর খেদমত সাদাকায়ে জারিয়া হিসেবে উপকার পৌছাবে।

শনিবার (২১ মে) সিলেটের দরগাহ গেইটের শহীদ সুলেমান হলে উত্তর সিলেটের প্রবীণ আলেমে দ্বীন, কোম্পানীগঞ্জের জামেয়া মুশাহিদিয়া খাগাইল মাদরাসার দীর্ঘকালীন সাবেক নাজিমে তালিমাত, আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরী (রহ.)’র শাগরেদ ও শায়খে ছত্রপুরীর খলিফা, মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিনের স্মারকগ্রন্থ ‘হায়াতে মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিন’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মাওলানা আব্দুল মতিন ফাউন্ডেশন সিলেটের সভাপতি এডভোকেট হাসান আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন কর কমিশন ঢাকা অঞ্চলের অতিরিক্ত কর কমিশনার কবি রকিব আল হাফিজ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মদনমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আতাউর রহমান পীর, ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি সিলেটের উপপরিচালক মাওলানা শাহ মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, দরগাহ মাদরাসার নাজিমে তালিমাত মাওলানা আতাউল হক জালালাবাদী, নয়াসড়ক মাদরাসার শায়খুল হাদিস মাওলানা আতাউর রহমান কোম্পানীগঞ্জী, প্রাচীন সাহিত্য পত্রিকা আল ইসলাহ সম্পাদক গল্পকার সেলিম আউয়াল, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সহ-সাধারণ সম্পাদক কবি ও গবেষক সৈয়দ মবনু, সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সাবেক চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সহসভাপতি দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী, সিলেট প্রেসক্লারে সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সিলেটের ডাকের চীফ রিপোর্টার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, দলইরগাঁও মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মুফতি সিকন্দর আলী, লালাবাজার ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল লতিফ, সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান, আল কোরআন শিক্ষা পরিষদের সভাপতি কারী মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, পাড়ুয়া আনোয়ারা উচ্চবিদ্যালয় এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুল মালিক, আল ফয়েজ ফাউন্ডেশন সিলেটের প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ মাওলানা ফয়জুর রহমান ও জামেয়া মুশাহিদয়া খাগাইল মাদরাসার সাবেক মুহতামীম মাওলানা আবদুল লতিফ।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে কর কমিশনের অতিরিক্ত কমিশনার কবি রকিব আল হাফিজ বলেন, মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিন উত্তর সিলেটের এক নিভৃতচারী মহাপুরুষ। তিনি সুন্নতে নববীর জীবন্ত প্রতিচ্ছবি হিসেবে জীবনভর শিক্ষা, সমাজসেবা ও দ্বীনি খেদমত আঞ্জাম দিয়েছেন। ইলমে ওহির আলো ছড়িয়ে দিতে জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। ফলে এ অঞ্চলের ইসলামপ্রিয় মানুষের কাছে তিনি ‘বড় মেছাব’ হিসেবে পরিচিত লাভ করেছেন।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও মদনমোহন কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আতাউর রহমান পীর বলেন, শিক্ষক হিসেবে মাওলানা আব্দুল মতিন ছিলেন প্রতিষ্ঠানের একটা স্তম্ভ। একই প্রতিষ্ঠানে ৪৪ বছর কাটিয়ে তিনি অসংখ্য ছাত্র সৃষ্টি করেছেন। তাঁর শিষ্যরা বর্তমানে দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতেও আঞ্জাম দ্বীনি খেদমত দিয়ে যাচ্ছেন।

ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি সিলেটের উপপরিচালক মাওলানা শাহ মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, মাওলানা আব্দুল মতিন শুধু শিক্ষক ও ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন না, একজন শিক্ষানুরাগী ও সালিশ ব্যক্তিত্ব হিসেবে ন্যায় ইনসাফ প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি সমাজবিরোধী কার্যকলাপরোধে সোচ্চার ছিলেন। পরোপকার ও মানবতার হিতাকাঙ্খী হিসেবে নিবেদিত ছিলেন। তাঁর নামানুসারে গড়ে উঠেছে দাতব্য সংস্থা মাওলানা আব্দুল মতিন ফাউন্ডেশন সিলেট।

লিডিং ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ জিয়াউর রহমান ও সাংবাদিক ফায়যুর রাহমানের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মাওলানা শায়খ আব্দুল মতিনের ছেলে ইয়র্ক বাংলা পত্রিকার সম্পাদক ও নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ মাওলানা রশীদ আহমদ।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগীরর সভাপতি মাওলানা গাজী রহমত উল্লাহ, মাওলানা আব্দুল মতিন ফাউন্ডেশন সিলেটের সহসভাপতি মুফতি মুফিজুর রহমান, জামেয়া মাহমুদিয়া সুবহানীঘাট মাদরাসার মঈনে মুহতামিম মাওলানা আহমদ সগীর, গোয়াইঘাট উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা গোলাম আম্বিয়া কয়েস, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এমরান আলম, মংলিরপার মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহমুদুল হাসান, আম্বরখানা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা জিয়াউর রহমান, বিয়ানীবাজার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক এটিএম তালহা, কুরআন একাডেমি ফর ইয়াং স্কলার পিআইসি নিউইয়র্ক- এর পরিচালক নুরুস সামাদ, আর-রশীদ ইসলামিক ইনসস্টিটিউটের পরিচালক মাওলানা সাদিকুর রাহমান, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জামাল উদ্দিন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ইমাদ উদ্দিন নাসিরী, আল ফয়েজ ফাউন্ডেশন সিলেটের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান হাফিজ সাজিদুর রহমান, সালুটিকর মাদরাসার নায়বে মুহতামিম মাওলানা সোহেল আহমদ, মাওলানা আব্দুল মতিন ফাউন্ডেশন সিলেটের কোষাধ্যক্ষ কবি নজমুল হক চৌধুরী, জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্র পরিষদের সভাপতি মাহফুজুল কিবরিয়া মাহফুজ, স্মারক সম্পাদনা পর্ষদ সদস্য ও দৈনিক শ্যামল সিলেটের স্টাফ রিপোর্টার আতিকুর রহমান নগরী, গোয়াইনঘাট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হোসাইন আহমদ রানা, গোয়াইনঘাট ছাত্র পরিষদের সভাপতি ইকবাল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে কুরআন তেলাওয়াত করেন হাফিজ মাওলানা ইমরান হোসাইন সেলিম। নাশিদ পরিবেশন করেন শিল্পী আখলাকুল আম্বিয়া।

এই সংবাদটি 32 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com