উলামায়ে কেরামের উদ্দেশ্যে মাওলানা ইবরাহীম দেওলার বয়ানের চম্বুকাংশ

প্রকাশিত: ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০২৩

উলামায়ে কেরামের উদ্দেশ্যে মাওলানা ইবরাহীম দেওলার বয়ানের চম্বুকাংশ

সিলেট রিপোর্টঃ

১. এই উম্মতের মধ্যে দুই নেশা হবে ১. জাহালতের নেশা। ২. পার্থিব বিলাসিতার নেশা। আর নেশার হালতে ভালোমন্দ কোনো হিতাহিত জ্ঞান থাকে না। জাহালতের নেশার কারণে উম্মত আজ আখেরাত, কবর, জান্নাত, জাহান্নামের কোনো ফিকির নাই। পার্থিব বিলাসিতার কারণে উম্মত তালীম থেকে বিমুখ হয়ে গেছে। এই দুই নেশা যখন উম্মতের মধ্যে ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে তখন দ্বীনের কথা মূল্যায়ন থাকবে না। এই কঠিন সময়ে নিজের ফিকিরের কথা বলা হয়েছে।

২. ইলমের পাত্র দুইটি ১. কলব ২. নফস। কলবের ইলম উপকারী নফসের ইলম ক্ষতিকর। নফসে নয়, বরং ইলমকে কলবে বসাও। কলবের ইলমের দ্বারা আখলাক, যুহদ, তাওয়াজু, ফিকরে আখেরাত পয়দা হয়। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর কলবের উপর ইলম নাযিল হয়েছে। নফসের ইলম দ্বারা

দাওয়াতের কাজে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম দুইটি জিনিষের ব্যবহার করেছেন, ১. ইলম ২. আখলাক। এই দুই জিনিসের দ্বারা সব জাহিলিয়াত ধ্বংস করেছেন।

নবীদের তরীকা যারা তলব নিয়ে আসতেন তাদের তালীম দিতেন। যাদের তলব নাই তাদের দাওয়াত দিতেন।

আলী রাযি. বলতেন, লাহব লা’বের মজলিস কুরআন ভূলিয়ে দেয়। মোবাইল ফোন অনর্থক বস্তু। এইজন্য মোবাইলের পিছনে সময় বেশি দেওয়ার কারণে কুরআন তেলাওয়াত ভুলে যাচ্ছে।

উলামায়ে কেরামের কাছে দুই আবেদন ১. আহলে মাকাম নেতৃত্ব পর্যায়ের উলামায়ে কেরামের কাছে সমর্থন ২. আহলে খেদমত উলামায়ে কেরামের কাছে, তাআউন অর্থাৎ সময় লাগানোর দ্বারা সাহায্য করা।

(২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমায় প্রদত্ত বয়ানের অংশ বিশেষ)

এই সংবাদটি 13 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com