বৃহস্পতিবার, ০৯ জুন ২০১৬ ০৫:০৬ ঘণ্টা

চামড়া শিল্প গার্মেন্টসকে ছাড়িয়ে যাবে : আমু

Share Button

চামড়া শিল্প গার্মেন্টসকে ছাড়িয়ে যাবে : আমু

amir-hossen-amu_39012_02_newsnextbd_91600প্রথম বাংলা নিউজ : শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, পরিবেশ দূষণ এবং যথাযথ মানের অভাবসহ বিভিন্ন কারণে বিদেশিরা চামড়া কিনতে চাচ্ছে না। এখন সাভারে চামড়াশিল্প স্থানান্তরের ফলে আমাদের চামড়ার মান নিশ্চিত হবে। তাই আগামীতে চামড়া শিল্প গার্মেন্টসকে ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করি।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিতে (ডিসিসিআই) ‘সরকার ও নিয়ন্ত্রকদের নীতি নির্ধারণে সহায়তার ক্ষেত্রে অ্যাক্রিডিটেশন একটি বৈশ্বিক হাতিয়ার’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতায় টিকতে পণ্যের গুনগত মান নিশ্চিত করার বিকল্প নেই মন্তব্য করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, অ্যাক্রোডিটেশন বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষাকৃত নতুন ধারণা। অ্যাক্রোডেটিশন হচ্ছে, তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে গুণগত মানসনদের গ্রহণযোগ্যতা নিশ্চিত করার একটা বিশ্ব স্বীকৃত পন্থা।

আমু বলেন, বিশ্ববাণিজ্যে বাংলাদেশি পণ্যের প্রসার ঘটাতে শুধুমাত্র অ্যাক্রোডিটেশন সনদ প্রদানের যোগ্যতা অর্জন যথেষ্ট নয়, এর পাশাপাশি ইস্যুকৃত মান সনদের বিষয়ে আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের কাছে আস্থা ধরে রাখা প্রয়োজন। সে লক্ষ্যে- সরকারি- বেসরকারি উদ্যোগে অ্যাক্রেডিটেড ল্যাবরেটরি স্থাপন, মানসনদ প্রদানকারী গবেষণাগারের গুণগতমানের বিষয়ে মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে।

সেমিনারে ঢাকা চেম্বারের প্রেসিডেন্ট হোসেন খালেদ বলেন, অ্যাক্রেডিটেশন এমন একটি টুলস যা শুধুমাত্র পণ্যের মান উন্নয়নে ব্যবহৃত হয় না। এটি সরকারের আইন প্রণয়ন, পরিবেশ সুরক্ষা, জন নিরাপত্তা, প্রতারণা প্রতিরোধ, ন্যায্য বাজার, জন সাধারণের অাস্থা স্থাপনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নীতি নির্ধারণ, মূল্যায়ন এবং ব্যবহার উৎসাহিত করে ব্যবসায় উৎপাদশীলতা, কর্মক্ষমতা উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা হিসাবে পালন করে।

অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড এ পযর্ন্ত  ৪৭টি প্রতিষ্ঠানকে মানসনদ দিয়েছে। আজ অনুষ্ঠানে কিউটেক্স সলিউশন লিমিটেডসহ ৫টি প্রতিষ্ঠানকে অ্যাক্রেডিটশন সনদ প্রদান করা হয়।

সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন, শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ডের মহাপরিচালক আবু আবদুল্লাহ, পরিচালক ডেভিড পল খন্দকার স্বপণ, অধ্যাপক ড. আলতাফ হোসেন প্রমুখ।

এই সংবাদটি 1,065 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com