দুই নারী ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে, আফিফের মৃত্যু গুলিতে

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৭, ২০১৬

দুই নারী ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে, আফিফের মৃত্যু গুলিতে

ডেস্ক রিপোর্ট:
আশকোনায় নিহত কিশোর জঙ্গি আফিফ কাদেরীর লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। আফিফ কাদেরী গুলিতে নিহত হয়েছে বলে ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন। গতকাল  ময়নাতদন্তের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ বলেন, তার শরীরে একাধিক গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে। গুলির কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। ওই কিশোরের শরীরে কোনো স্প্লিন্টারের বা বিস্ফোরণের ক্ষত তিনি দেখেননি। ডিএনএ পরীক্ষার জন্য কিশোরের মাসল, চুল ও দাঁত এবং ভিসেরা পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানান এই চিকিৎসক।
এছাড়াও আত্মসমর্পণকারী দুই নারীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। গতকাল তাদের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। গতকাল আদালত তাদের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
সূত্র জানায়, সিটিটিসির কর্মকর্তারা আত্মসমর্পণকৃত ওই নারী জঙ্গিদের কাছে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে, ওই বাড়িতে মুসা সর্বক্ষণ থাকতো না। মাঝেমাঝে আসতো। আবার চলে যেতো। রাতে ওই বাড়িতে কোনোদিন থাকেনি।
এদিকে অপারেশন রিপল-২৪ এর অভিযানের ঘটনায় রোববার গভীর রাতে দক্ষিণখান থানায় কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের এসআই শাহীনুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। মামলা নম্বর-২৬। ২০১২ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনে ওই মামলা হয়। নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জেএমবিকে সমর্থন করা নাশকতার উদ্দেশ্যে ওই সূর্য ভিলার বাড়িতে অস্ত্র মওজুদ করার অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার এজাহারে উদ্ধারকৃত অস্ত্র দেখানো হয়েছে ১টি পিস্তল, ৫ রাউন্ড গুলি, ১৭টি গ্রেনেড, ১টি ছুরি ও ২টি পোড়া ল্যাপটপ। ওই মামলায় ৯ জনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা হচ্ছে- তৃষা মনি, জেবুন্নাহার ওরফে শিলা, শাকিরা ওরফে তাহিরা, আফিফ কাদেরী, মাইনুল ইসলাম ওরফে আবু মুসা, রাশেদুর রহমান সুমন, মো. সেলিম, ফিরোজ হোসেন ও অজ্ঞাত একজন যুবক। দক্ষিণখান থানার ওসি তপন চন্দ্র সাহা জানান, সিটিটিসির এক এসআই বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছে।

এই সংবাদটি 72 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com